Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

কৃষি আইন নিয়ে বিড়ম্বনায় মোদি সরকার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৩৬ পিএম

বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়েছে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে। পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও কর্ণাটকের পর কৃষকদের ক্ষোভ দিল্লিতেও আছড়ে পড়েছে। সোমবার সকালে দিল্লির ইন্ডিয়া গেটের কাছে একটি পুরনো ট্র্যাক্টরে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। ক্রমবর্ধমান বিক্ষোভ, বিরোধীদের সমালোচনা ও বহুদিনের জোটসঙ্গী অকালি দলের পক্ষত্যাগে কঠিন সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে মোদি সরকার।

কারা ট্র্যাক্টরে আগুন ধরিয়েছেন তা খোঁজ করে দেখছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, পাঞ্জাবের যুব কংগ্রেস কর্মীরাই এ কাজ করেছেন। ইতিমধ্যে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। পাঞ্জাবে কৃষকরা বিক্ষোভ থামাবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। তাঁরা বিভিন্ন রাস্তা বন্ধ করে রেখেছেন। এই অবস্থায় মোদি সরকারের বিরুদ্ধে চাপ আরো বাড়াতে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বিক্ষোভ জানাতে পথে নামছেন। তিনি এর জন্য বেছে নিয়েছেন ব্রিট্রিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম মুখ ভগত সিংয়ের গ্রাম খটকর কলা-কে। সেখানে তিনি ভগত সিংয়ের জয়ন্তীতে তাকে শ্রদ্ধার্ঘ জানাবেন। তারপর সেখান থেকেই শুরু করবেন বিক্ষোভ আন্দোলন। পাশাপাশি তিনি রাজ্যে আইন বদল করে কৃষকদের স্বার্থ বজায় রাখা হবে বলে জানিয়েছেন। আইন বদলের জন্য আইনজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনাও শুরু হয়ে গেছে।

বিতর্কিত এই তিন কৃষি বিলে প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ রোববারই সাক্ষর করে দিয়েছেন। ফলে বিজ্ঞপ্তি জারির পর তা এখন আইনে পরিণত হয়েছে। এরপরই এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ আরো তীব্র হয়েছে। পাঞ্জাবে অমরিন্দর সিংয়ের বিক্ষোভে না নেমে উপায়ও ছিল না। কারণ, রাজ্য জুড়ে কৃষকরা রাস্তায়। কংগ্রেস তাদের সমর্থন করছে। অন্যদিকে অকালি দল এনডিএ থেকে বেরিয়ে এসে রাজ্যে আন্দোলনে নেমে পড়েছে। কৃষকদের স্বার্থরক্ষার পাশাপাশি তারা আক্রমণ করছে অমরিন্দর সিং-কে। এই অবস্থায় অমরিন্দারও রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করলেন। সূত্র: পিটিআই, এএনআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মোদি

২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ