Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

কোন দেশের নাগরিকরা ওমরাহ করতে পারবেন?

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:০৪ পিএম

সউদী আরবের হজ ও ওমরাহমন্ত্রী মুহাম্মদ সালেহ বেনতেন ঘোষণা করেছেন যে, কোন দেশকে তাদের যাত্রীদের ওমরাহ করার জন্য প্রেরণ করার অনুমতি দেবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। আগামী ১ নভেম্বর থেকে বিদেশী নাগরিকরা ওমরাহ পালনে সউদী যেতে পারবেন।

আল-এখবারিয়াহ টেলিভিশন চ্যানেলের সাথে এক সাক্ষাৎকারে বেনতেন বলেন, আগামী হজ মৌসুমে বিদেশী হজযাত্রীদের আগমন ও প্রস্থানের জন্য একটি বিশেষ ডিজিটাল অ্যাপ থাকবে।

৪ অক্টোবর থেকে ওমরাহ পরিষেবা পুনরায় চালু করার কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রথম পর্যায়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মাত্র ১২টি গ্রুপকে ওমরাহ করতে দেয়া হবে।

‘ওমরাহযাত্রীদের বিভিন্ন দলে বিভক্ত করা হবে এবং প্রতিটি গ্রুপের সাথে পবিত্র হারাম শরীফের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা থাকবেন। প্রথম পর্বে কেবল ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সের ওমরাহযাত্রীদেরই অনুমতি দেয়া হবে’ -বলেন তিনি।

বেনতেন বলেন, ওমরাহর জন্য কোনও ফি নেই। ‘কোনো ওমরাহযাত্রী মোবাইল অ্যাপ ‘ই’তামারনা’র মাধ্যমে প্রবেশের প্রক্রিয়া সম্পন্ন না করলে তাকে মক্কার মসজিদে হারামে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হবে না এবং এটির মাধ্যমে ওমরাহযাত্রীদের স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিশ্চিত করা হবে’।

তিনি আরও যোগ করেন যে, অ্যাপসে প্রযুক্তিগত কোন প্রতিবন্ধকতা তৈরি হলে বিকল্প ব্যবস্থার মাধ্যমে প্রক্রিয়াগুলি সম্পন্ন করা হবে।

সউদী থেকে এখন ওমরার জন্য নিবন্ধন করা যাবে

ওমরাহ পালন, পবিত্র দু’টি মসজিদ পরিদর্শন ও সেখানে ইবাদত করার জন্য গত রোববার থেকেই প্রবাসী, সউদী নাগরিক এবং তাদের সউদীতে অবস্থানরত পরিবারকে ওমরাহ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ‘ইতামারনা’ ডাউনলোড করার অনুমতি দেয়া হয়েছে।
অ্যাপ্লিকেশনটি এখন আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের ব্যবহারকারীরা জন্য তাদের স্মার্টফোনে ওমরাহযাত্রার প্রথম পর্ব শুরু হওয়ার সাত দিন আগে পাবেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর আগে ধীরে ধীরে ওমরাহ পুনরায় চালুর ঘোষণা দেয় এবং ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে সীমিত সংখ্যক যাত্রীকে দুটি পবিত্র মসজিদ যিয়ারতের অনুমতি দেয়।

প্রথম পর্যায়ে, সারাদেশ থেকে আগত সউদী নাগরিক এবং প্রবাসীদের ৪ অক্টোবর থেকে ৩০ শতাংশ ধারণক্ষমতায় বা ৬ হাজার যাত্রীকে ওমরাহ করার অনুমতি দেয়া হবে। এটি গ্র্যান্ড মসজিদের স্বাস্থ্য সতর্কতামূলক পদক্ষেপের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। ওমরাহযাত্রীদের ১২টি দলে ওমরাহ পালন করতে দেয়া হবে, যার প্রতিটিতে থাকবেন ৫০০ ওমরাহযাত্রী।
ওমরাহযাত্রী এবং দুই পবিত্র মসজিদ দর্শনার্থীদের প্রবেশ করা তথ্য নিবন্ধনের সাথে করোনভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল অ্যাপ ‘তাওয়াক্কালনা’ অ্যাপ্লিকেশনটির সাথে সরাসরি জুড়ে দেয়া হবে। এ পদক্ষেপে ওমরাহযাত্রী বা দর্শনার্থীকে করোনভাইরাস থেকে মুক্ত থাকার গ্যারান্টি প্রদানসহ একাধিক পদ্ধতি নিয়ে গঠিত হবে বলে হজ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

এদিকে দীর্ঘ ৬ মাস পর ওমরাহ শুরু করার খবরে চঞ্চল হয়ে উঠেছে পবিত্র মক্কা-মদীনার হজ-ওমরাহ সামগ্রীর দোকানগুলো। দোকান মালিকরা রয়েছেন ওমরাহযাত্রীদের স্বাগত জানানোর অপেক্ষায়। সূত্র : সউদী গেজেট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ