Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

৩ যুগ ধরে বাঁশের সাঁকোই ভরসা

শংকর চন্দ্র বনিক, নান্দাইল (ময়মনসিংহ) থেকে | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৭ এএম

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার আচারগাঁও ইউনিয়নের আমুদাবাদ ও পুরহরি গ্রামের মাঝ দিয়ে ভয়ে যাওয়া খাল গ্রাম দু’টির সীমানা চিহ্ন বহন করে। আনুমানিক ১২০ ফুট চওড়া এ খালের ওপর নির্মিত একমাত্র ভরসা বাঁশের সাঁকো। এই সাঁকো দিয়েই প্রতিদিন পারাপার হতে হয় গ্রামবাসীদের। সাঁকো দিয়ে প্রায় ৩ যুগ ধরে আমুদাবাদ ও পুরহরি গ্রামের শত শত আবাল বৃদ্ধ বনিতা যাতায়াত করে থাকেন। সরেজমিনে দেখা যায়, খালের পানি বেড়ে গেলে সাঁকোর অনেকটাই তলিয়ে যায়। তারপরেও ঝুঁকিপূর্ণ এ সাঁকো দিয়ে প্রতিদিন স্কুলে যেতে হয় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের। নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা আতংক নিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে পাড়াপাড় হতে হয়। এভাবেই বছরে পর বছর গ্রামবাসীদের সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করলেও এখানে সেতু নির্মাণের কোন উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সাঁকো পাড়াপাড়ের প্রায় সময় ঘটছে দুঘর্টনা।
আমুদাবাদ গ্রামের বাসিন্দা সবুজ মিয়া জানান, বিগত দিনে অনেক সরকার ক্ষমতা এলেও আজ পর্যন্ত আমাদের দুই গ্রামের সংযোগ ও যাতায়াতের জন্য একটি সেতু নির্মাণ করা হয়নি। নির্বাচন এলেই খালের ওপর সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রার্থীরা হাজির হয়। জনপ্রতিনিধিরা নির্বাচিত হওয়ার পর সেই প্রতিশ্রুতি ভুলে যান।
এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেল হোসেন ভূইঁয়া কাইয়ুম জানান, এ খালের ওপর সেতু নির্মাণ করা জরুরি। কারন দুই গ্রামের জনসাধারনের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম এই খাল। বর্তমান সরকারের আমলে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন ২০১৮ সালের ৩১ অক্টোবর এই খালের ওপর একটি সেতু নির্মাণ করার জন্য ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করলেও এখন পর্যন্ত সেতু নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ