Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সন্ত্রাসী হামলায় পঙ্গু হতে চলেছে আশিক

চরফ্যাশন (ভোলা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৭ এএম

সন্ত্রাসী হামলায় পঙ্গু হতে চলছে ২৩ বছরের যুবক মো. আশিক। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে। এই বিষয় শশীভূষণ থানায় মামলা হলেও প্রভাবশালী আসামিরা হুমকি-দমকি দিচ্ছে বাদী ও তার সন্তানদের। গতকাল মামলার বাদী আমেনা বেগম কান্না কণ্ঠে এই প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করেন।
মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চরফ্যাশনের শশীভূষণ বাজারে রাজধানী ইলেক্ট্রনিক্সের প্রোপাইটার আলাউদ্দিন কর্মকারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ম্যানেজার হিসাবে কাজ করেন আশিক (২৩)। স্থানীয় রুহুল আমীনের সাথে ছিল ৫০ হাজার টাকার লেন-দেন। ওই টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে গত ২০ এপ্রিল দুপুরে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় আউয়াল মোল্লার ছেলে রুহুল আমীন মোল্লা (৪০), মো. হোসেনের ছেলে শিপন (৩০) ও আউয়াল মোল্লার ছেলে রাজ্জাক মোল্লা (৪৫)সহ মোট ৫ জন আশিকের ওপর হামলা চালায়।
রুহুল আমীন মোল্লা চাইনিজ কুড়ার দিয়ে মাথায় আঘাত করলে আশিক হাত দিয়ে ঠেকাতে গেলে বাম হাত আলাদা হয়ে যায়। তাকে চরফ্যাশন হাসপাতালে ভর্তি করলে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে থেকে ঢাকা। ঢাকার হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. হাছান আশিকের অপারেশন করেন।
তিনি বলেছেন, ওই হাত দিয়ে কোন কাজ করতে পারবে না। তার মানে ২৩ বছরের যুবক আশিক পঙ্গুত্ব বরণ করতে যাচ্ছে। মামলার বাদী আশিকের মা আমেনা বেগম বলেন, আলাউদ্দিন কর্মকার বলেছেন, সব খরচ বহন করবে। ২ মাস চিকিৎসা করার পর আর খবর রাখেনা। আলাউদ্দিন কর্মকার আশিকের স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছে বলেও অভিযোগে তিনি জানান। আলাউদ্দিন আশিককে চাকরিচ্যুত করেছেন। আমি এখন অসহায় এ ছেলেকে নিয়ে কোথায় যাব? তার থেরাপীর প্রয়োজন। টাকার অভাবে কোন থেরাপী দিতে পারছিনা।
বাদীনি আরো বলেন, চরফ্যাশন আদালতের হাজির হতে গেলে বারান্দায় আমাকে এনায়েতসহ আসামিরা হুমকি দিয়েছে এবং শশীভূষণ বাজারেও মামলা তুলতে গালমন্দ করেছে। এই ব্যাপারে শশীভূষণ থানার জিডি হয়েছে। আমরা আমাদের নিরাপত্তা ও সুবিচার দাবি করছি।
শশীভূষণ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। সব আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হয়েছে। তারা নিরাপত্তাহীনতা থাকলে অভিযোগ করলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ