Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

শেরপুরে নিজ সন্তানকে বিক্রি করে দেয়ার প্রতিবাদে মায়ের আত্নহত্যার চেষ্টা , শিশু উদ্ধার

পিতাকে আটক করছে পুলিশ

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৬:১৫ পিএম

শেরপুরে পাষন্ড বাবা নিজ ঔরসজাত সন্তানকে অনত্র বিক্রি করে দেয়ার প্রতিবাদে ইউরিয়া সার খেয়ে আত্নহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে মা। পরে পুলিশ খবর পেয়ে আত্নহত্যার চেষ্টা করা মা রুমা আক্তারকে ও কানাশাখোলা এলাকায় জৈনিক শফিকের কাছে বিক্রিকৃত শিশুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। অন্যদিকে শিশুটির বাবা সুলতানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ । ঘটনাটি ঘটেছে শেরপুর সদর উপজেলার সাপমারী এলাকায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায় , সদর উপজেলার সাপমারী গ্রামের নাজিম উদ্দিনের ছেলে সুলতান দুই স্ত্রী থাকার পর বিগত দুই বছর পূর্বে গাজীপুর জেলার মাওনা এলাকার আঃ আজিজ এর মেয়ে সুমা আক্তারকে বিয়ে করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এদিকে তাদের দাম্পত্য ও সংসার জীবনে সুমা আক্তার গভবর্তী হয়। পরে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে তার সিজারের মাধ্যমে একটি ছেলে সন্তান জন্মগ্রহণ করে। এদিকে সিজারের জন্য স্বামী সুলতান ২২ হাজার টাকা খরচ করেন। পরে সিজারের ২২ হাজার টাকা পাষন্ড স্বামী সুলতান স্ত্রী সুমা আক্তারের কাছে দাবী করেন এবং টাকা না দিলে তার শিশু সন্তানকে বিক্রি করে টাকা আদায় করবে। পরে কানাশাখোলা এলাকার কাপতুল মন্ডলের ছেলে শফিকের কাছে ওই শিশু সন্তানকে ৯১ হাজার টাকা বিক্রি করে দেন । যদিও শফিকের দাবী সে শিশুটিকে কিনে নয় বরং তার সন্তান না থাকায় লালন পালন করতে দত্তক নিয়েছিল।

এদিকে আজ ৩০ সেপ্টেম্বর শিশুটির মা সুমা আক্তার তার শিশুর খোঁজে শফিকের বাসায় যায়। এসময় ক্রেতা শফিক শিশুটি তার বাসায় নেই বলে তাড়িয়ে দেয়। পরে স্থানীয় কানাশাখোলা বাজারে ইউরিয়া সার খেয়ে সুমা আক্তার আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয় সাংবাদিকদের নজরে এলে পুলিশকে খবর দিলে সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ