Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মুখের ভাষা বড্ড নোংরা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৪ এএম

ইংল্যান্ডের এক চিড়িয়াখানা থেকে পাঁচ টিয়াকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দর্শনার্থীরা আপাতত ওই পাঁচ টিয়াকে দেখতে পারবেন না। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কথা, ওরা সব সময় খুবই নোংরা কথা বলে। ছোট, বড় জ্ঞানটুকুও নেই। তাই ভাষা শিক্ষার জন্য অন্যত্র পাঠানো হয়েছে।
চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ওই পাঁচ টিয়াকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে যা দেখেছেন তাতে তারা হতবাক। টিয়াদের সামনে দর্শনার্থী গেলেই খুবই খারাপ ভাষায় কথাবার্তা বলে। আর এতে করে সব বয়সের দর্শনার্থীদের পড়তে হয় বিব্রতকর অবস্থায়।
অনেক ভেবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, আপাতত এই পাঁচ টিয়াকে চিড়িয়াখানায় রাখা উচিত হবে না। খারাপ কথা ভুলে ভাল কথা না শেখা পর্যন্ত তাদের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। একই সঙ্গে পাঁচ টিয়া আলাদা আলাদা থেকে কুকথা ভুলে ভদ্র ও সভ্য হবে।
লিঙ্কনশায়ার ওয়াইল্ডলাইফ পার্কের পক্ষে জানানো হয়েছে, পাঁচটি আফ্রিকান টিয়াকে আপাতত আর চিড়িয়াখানায় আসা দর্শকদের সামনে রাখা হবে না। পাঁচ টিয়াকে আলাদা আলাদা পাঁচ জনের কাছে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে নিজেদের সংশোধন করে ফেরার পরে ফের তাদের দর্শকদের মুখোমুখি হতে দেওয়া হবে।
এই পাঁচ টিয়ার নাম এরিক, জেড, এলসি, টাইসন আর বিল্লি। কিছুদিন ধরেই লক্ষ্য করা হচ্ছিল, এরা একসঙ্গে হলেই খারাপ ভাষায় কথা বলে। তবে ঠিক কী ধরনের ‘নোংরা’ কথা এরা বলে সে ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি।
চিড়িয়াখানার এক কর্মকর্তা স্টিভ নিকোলাস সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, ‘শিশুদের সামনে ওদের কথাবার্তা নিয়ে আমরা চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম।’ এখন অপেক্ষা, কবে এই পাঁচ আফ্রিকান টিয়ার সুশিক্ষা শেষ হবে। তারপরেই ফেরা হবে চিড়িয়াখানায়। সূত্র : সিএনএন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ