Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

স্বামীর অগোচরে সন্তান দান অতঃপর...

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০২ এএম

বড় বোন নিঃসন্তান। বিয়ের অনেক বছর পরও সন্তানের মুখ দেখেননি তিনি। সন্তানের জন্য বোনের হাহাকারে মন গলে যায়। নিজের দেড় বছর বয়সী শিশু পুত্রকে তুলে দেন বোনের কোলে। কিন্তু বিষয়টি কোনভাবেই মেনে নেবেন না স্বামী। এ কারণে পুরো ঘটনা স্বামীর কাছে গোপন রাখেন। স্বামীকে বলেন, তাদের সন্তান চুরি হয়ে গেছে। 

পাগলপ্রায় স্বামী থানায় ছোটেন। অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে করেন অপহরণ মামলা। তবে পুলিশি তদন্তে বেরিয়ে আসে আসল তথ্য। গতকাল ভোরে ফেনীর ছাগলনাইয়া থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় মা ও খালাকে। চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনায় চলছে তোলপাড়।
শিশুটির বাবা আবদুল হান্নান নগরীর আকবরশাহ থানা এলাকার পাক্কা রাস্তার মাথা এলাকার বাসিন্দা। গত ২৪ সেপ্টেম্বর তার শিশু পুত্র হাবিবুর রহমান রোহান অপহৃত হয়েছে অভিযোগ করে ২৭ সেপ্টেম্বর মামলা করেন তিনি। আসামি করা হয় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে। আকবরশাহ থানার ওসি জহির হোসেন বলেন, চাঞ্চল্যকর এ মামলাটির তাৎক্ষণিক তদন্ত শুরু করে পুলিশ। সংগ্রহ করা হয় ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ। দেড় বছরের শিশু অপহরণের ঘটনায় তার পিতাকে বিচলিত দেখা গেলেও মা মাবিয়া খাতুন ছিলেন স্বাভাবিক। তার এ অবস্থা দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। আবার যে সময়ে শিশুটিকে অপহরণ করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়, ঠিক সে সময়ের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় মাবিয়া খাতুন নিজেই তার সন্তান কোলে বাসা থেকে বের হচ্ছেন। আবার বাসায় ফিরছেন খালি হাতে। একপর্যায়ে পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে স্বীকার করে নিঃসন্তান বোনের কষ্ট গোছাতে তিনি তার শিশু পুত্র বড় বোনকে দিয়ে দিয়েছেন। আর বিষয়টি স্বামীর কাছ থেকে গোপন রেখেছেন। এমন তথ্য পেয়ে পুলিশ ছাগলনাইয়ায় অভিযান চালিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। এ সময় গ্রেফতার করা হয় শিশুটির খালা শাহেনা আক্তারকে। ওই দুই মহিলাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অগোচরে-সন্তান-দান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ