Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পিছু হটছে আর্মেনিয়ান সৈন্যরা : যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা আজারবাইজানের প্রেসিডেন্টের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০২০, ১০:২৮ এএম

আজারবাইজানের সৈন্যদের প্রতিরোধের মুখে পিছু হটছে আর্মেনিয়ান সৈন্য ও স্বঘোষিত বিদ্রোহীরা। এ অবস্থায় নিজেদের দাবীকৃত অনেক এলাকা দখল করতে সক্ষম হয়েছে আজারবাইজানের সৈন্যরা।

স্বঘোষিত নাগরনো কারাবাখ প্রজাতন্ত্রের মুখপাত্র বাহরাম পগোস্যানের জানিয়েছেন, ‘পুরো এলাকাজুড়ে বেসামরিক নাগরিকদের ঘরবাড়ি লক্ষ্য করে আজারবাইজানের চালানো হামলার ছাপ রয়েছে। তারা শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক আচরণ করে আসছে’।

এদিকে শর্ত ছাড়াই বিতর্কিত অঞ্চল না ছাড়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট। আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলকহাম আলিয়েভ জানান, দীঘদিন ধরে বিরোধপূর্ণ অঞ্চলটির সমস্যা সমাধানে আমরা সমঝোতার কথা বলে আসছি। তবে এটি অবশ্যই ১৯৯২ সালে গঠিত ইউরোপের নিরাপত্তা সংস্থার মাধ্যমে হতে হবে।

আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিন্যান বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য হলো পরিস্থিতির যাতে উন্নতি হয় সে ব্যবস্থা করা। পুনরায় শান্তি স্থিতিশীলতা ফেরাতে আমরা কাজ করে যা।

আর্মেনিয়ার বিভিন্ন স্থাপনা লক্ষ্য করে কামান থেকে মুহুর্মুহু গোলা নিক্ষেপ করে আজারবাইজানের সেনারা। ধ্বংস করে দেয়া দেয়া হচ্ছে জাবরাইল এলাকার বিভিন্ন স্থাপনা। আর্মেনিয়ার উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের দিকে সংঘাতের তীব্রতা আরও বেড়েছে। আজারবাইজানের আগদাম অঞ্চলের বেশ কয়েকটি গ্রামের বাড়ি ঘর গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। পুড়ে যায় বেশ কিছু এলাকাও।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের দুই রাষ্ট্র ১৯৮৮ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ভয়াবহ যুদ্ধের পর যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হলেও নতুন করে সৃষ্ট সংঘাতের স্পষ্ট কারণ এখনো জানা যায়নি।

নাগরনো-কারাবাখ আজারবাইজানের অন্তর্ভুক্ত হলেও অঞ্চলটি পরিচালনা করছে আর্মেনিয়ার আদিবাসী বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। আজারবাইজানের বিরুদ্ধে বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে হামলার অভিযোগ করেছে তারা।

বিরোধপূর্ণ নাগরনো-কারাবাখ অঞ্চলে সংঘাত বন্ধে জার্মানিতে বিক্ষোভ হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিকে ভয়াবহ আখ্যা দিয়ে যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। শর্ত ছাড়াই সংঘাতে লিপ্ত দেশ দুটিকে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁও।



 

Show all comments
  • Mzh Zumon ১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:২৬ পিএম says : 0
    সারা পৃথিবীতে মুসলমানরা ঐক্যবদ্ধ হলে মুসলমানদের হুঙ্কারে কাফের বেঈমান বিদ্যুৎ গতিতে পালাবে.যুদ্ধ করা লাগবে না. ইনশাআল্লাহ.
    Total Reply(0) Reply
  • Robin Ahmed ১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:২৬ পিএম says : 0
    কেবল তো সিনেমার ট্রেইলার চলছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Foysal Hasan ১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:২৭ পিএম says : 0
    দখল না উদ্ধার করছে কিছু জমি আজারবাইজার নিজেদের দখল করা জমি
    Total Reply(0) Reply
  • করিম ১ অক্টোবর, ২০২০, ৫:০৬ পিএম says : 0
    বিশ্ব আবার মূসলমানদের হাতে আসবে ইনশাআল্লাহ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আজারবাইজান


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ