Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

পরিবেশ অধিদপ্তরের উদাসীনতা মীরসরাইয়ে নাহার এগ্রো’র বর্জ্যে অতিষ্ঠ জনসাধারণ

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৬ পিএম

উপজেলার ১নং করেরহাট ইউনিয়নের করেরহাট-রামগড় রোডে ফরেষ্ট অফিস সংলগ্ন নাহার এগ্রো’র মালিকানাধীন পোল্ট্রি ফার্মের বর্জ্যে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে স্থানীয় জনগন ও পথচারিরা। দেশের প্রচলিত নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে এই ফার্মের উৎপাদিত বর্জ্য যত্রতত্র ফেলার অভিযোগ রয়েছে। এমনকি জনসাধারণের চলাচলের রাস্তার পাশে স্তূপাকারেও জমিয়ে রাখে বছরের পর বছর। এছাড়াও নাহার হেচারির বিষাক্ত বর্জ্য দুষিত করছে আশেপাশের এলাকার পরিবেশ। এসব দেখবালের দায়িত্বে থাকা পরিবেশ অধিদপ্তরের উদাসীন কর্মকান্ড নিয়েও আছে সমালোচনা। নিয়মিত মাসোহারা নিয়ে এসব অনিয়ম দেখেও না দেখার ভান করে থাকেন বলে অভিযোগ তুলছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয় বাসিন্ধাদের অভিযোগ ভোর বেলায় নাহার এগ্রো’র গাড়ি করে পোল্ট্রি মুরগীর ডিমের খোসা, পঁচা ডিম, মুরগীর বিষ্ঠা এখানে ফেলা যায় নাহার এগ্রো কর্তৃপক্ষ।
জানা যায় বারইয়ারহাট-রামগড় রোডে প্রায় ৪৮ কিলোমিটার সড়কে প্রতিনিয়ত সিএনজি, বাস, ট্রাক সহ বিভিন্ন পরিবহনে হাজার হাজার যাত্রী সাধারণ চলাচল করে। ওই রাস্তার পাশে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় উপজেলার ২নং হিঙ্গুলী ইউনিয়নের তালতলী ধলিয়া দিঘির পশ্চিম পাড়ের নাহার এগ্রো’র ঘাস প্রকল্পের পাশে বারইয়ারহাট-করেরহাট জন গুরুত্বপূর্ণ সড়কের উপর পোল্ট্রি মুরগীর ডিমের খোসা, পঁচা ডিম, মুরগীর বিষ্ঠা ফেলে পরিবেশ দুষণ করছে। এতে করে বারইয়ারহাট- করেরহাট মুখী যাতায়াতকারীরা পড়ছে চরম দুর্ভোগে।

এই ব্যাপারে বারইয়ারহাট-রামগড় মুখী নিয়মিত সিএনজি (আটোরিক্সা চালক) মফিজ মিয়া জানান, গাড়ি চালানো সময় ধলিয়া দিঘির পাড় এলাকায় পার হওয়ার সময় যাত্রীসহ আমার দম বন্ধ হয়ে আসে এসব বর্জ্যরে দুর্গন্ধে ।

এই ব্যাপারে হিঙ্গুলী ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য দীন মোহাম্মদ বলেন, নাহার এগ্রো’র পোল্ট্রি বর্জ্যরে দুর্গন্ধে জীবন দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে, মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছে। পরিবেশ অধিদপ্তর ও যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যেমে দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়া জরুরী কিন্তু তারা কেন বা কার স্বার্থে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা তা আমার বোধগম্য নয়।
এই বিষয়ে নাহার এগ্রো’র এজিএম মোহাম্মদ আলা উদ্দিন এর ব্যাক্তিগত মোবাইলে একাধিক বার ফোন করা হলেও তাকে মোবাইলে পাওয়া যায় নাই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ