Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নিরাপত্তাহীন যোগী রাজ্য

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৪ এএম


ভারতের উত্তরপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও দলিত নেত্রী মায়াবতী একের পর এক ধর্ষণ-খুনের ঘটনায় যোগী সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন। হাথরস থেকে বলরামপুর— অপরাধ ঘটছেই। যোগীর শাসনে উত্তরপ্রদেশে ‘বোনেরা নিরাপদ নয়।’ আর মুখ্যমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যর্থ। তাই রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানিয়ে বিএসপি নেত্রীর তোপ, ‘যোগীকে গোরক্ষপুরে পাঠিয়ে দিন।’

গত মঙ্গলবার দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে হাথরসের দলিত মহিলার মৃত্যুর পরেই ভারতজুড়ে এ নিয়ে ক্ষোভ-বিক্ষোভ চরমে উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে যোগী রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনের ভ‚মিকা নিয়ে। হাথরসের ওই ঘটনার পরে ফের উত্তপ্রদেশেরই বলরামপুরে প্রায় একই রকম ভাবে এক তরুণীকে গণধর্ষণ ও খুন করা হয়েছে।
একের পর এই ধরনের ঘটনায় শুধু রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসন নয়, সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুললেন বিএসপি নেত্রী। মায়াবতীর প্রশ্ন হাথরসের ঘটনা নিয়ে সারা দেশে তোলপাড়। তার মধ্যে ফের বলরামপুরের ঘটনা কী ভাবে ঘটল?

একটি সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘হাথরসের ঘটনার পর ভেবেছিলাম মহিলাদের উপর অত্যাচার-ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে উত্তরপ্রদেশ সরকার। কিন্তু তার পরেও একই রকম ভাবে দলিত ছাত্রীর উপর নির্যাতন করা হল। রাজ্যে বিজেপির শাসনে অপরাধী, মাফিয়া, ধর্ষকরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে।’
বিএসপি নেত্রী বলেন, ‘অপরাধীদের এনকাউন্টার করা হচ্ছে। বাড়িঘর ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু লোকে বলছে, এগুলোর কোনোটাই সততার সঙ্গে নয়, বরং করা হয়েছে শুধুই রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে। যদি সেটা হয়, তা হলে তা অত্যন্ত লজ্জাজনক। সমাজের সব স্তরের মানুষ এই সরকারের কাজকর্মে বীতশ্রদ্ধ। উত্তরপ্রদেশের মা-বোনেরা নিরাপদ নয়। বিশেষ করে দলিত সম্প্রদায়ের তরুণী-যুবতীদের একদমই নিরাপত্তা নেই।’

এর জন্য মায়াবতী সরাসরি কাঠগড়ায় তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগীকে। তাকে সরিয়ে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানিয়ে বলেছেন, ‘কেন্দ্রকে বলতে চাই। উত্তরপ্রদেশ সরকারের ঘুম ভাঙছে না। যোগী আদিত্যনাথ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি মোটেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না। হয়তো আরএসএস-এর চাপে মুখ্যমন্ত্রী করা হয়েছে। কিন্তু যোগী সরকার চালাতে অক্ষম। ওকে গোরক্ষপুর পাঠিয়ে অন্য কাউকে মুখ্যমন্ত্রী করুন। নয়তো রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করুন।’ সূত্র : দ্য উইক/রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যোগী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ