Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বগুড়ায় বিএনপিতে অসন্তোষ

বগুড়া ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৪ অক্টোবর, ২০২০, ১২:১০ এএম

বগুড়ায় জেলা বিএনপির নব গঠিত আহবায়ক কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া ও এই কমিটির বিরুদ্ধে দফায় দফায় বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে দলের দুই ডজন তরুণ নেতাকে বহিষ্কারকে ঘিরে বগুড়া বিএনপির অভ্যন্তরে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। দল কার্যত স্থবির অকার্যকর হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন সাধারণ নেতা কর্মীরা।

গতকাল শনিবারও বগুড়া শহরে একদল নেতা-কর্মী বগুড়া শহরের বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া সদর আসনের সংসদ সদস্য জিএম সিরাজের বিরুদ্ধে ঝাড়– মিছিল বের করে। দুপুরে এই মিছিলের আগে বিক্ষোভকারীরা পিটিআই মোড়ে সড়ক অবরোধ করে। বিক্ষোভকারীদের কাছে খবর ছিল বগুড়া জেলো বিএনপির আহবায়ক ও সংসদ সদস্য জিএম সিরাজ ওই সড়ক পথে ঢাকা থেকে বগুড়ায় তার বাসায় আসবেন।
জানতে চাইলে বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম জানান, গত ২২ সেপ্টেম্বর বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির এক প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় শিবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কয়েকজন নেতা-কর্মী বেশ কিছু সাংগঠনিক অনিয়ম তুলে তার প্রতিকার চান। এ সময় আরও কিছু সংখ্যক নেতা-কর্মী দলের মেয়াদোত্তীর্ণ আহবায়ক কমিটিকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে সভাস্থলের চেয়ার ভাঙচুর করে। এর জের ধরে ৪ দিন আগে বগুড়া পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর , জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র বিএনপি নেতা সিপার আল বখতিয়ারকে বহিষ্কার করা হয়। আর এই বহিষ্কারকে সিপার সমর্থকরা অবৈধ ও অনিয়মতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে প্রতিদিন বিক্ষোভ সমাবেশ করে যাচ্ছে। সর্বশেষ গত শনিবার শহরে সিপার সমর্থক নেতা কর্মীরা শহরে ঝাড়– মিছিল করে ।
জানতে চাইলে সিপার আল বখতিয়ার জানান, বগুড়া বিএনপির নতুন আহবায়ক কমিটি দায়িত্ব নেয়ার পর তাকে ছাড়াও ২২ জন নেতাকে বহিষ্কার করেছে। তার বহিষ্কারাদেশটি কোন সাংগঠনিক নিয়ম ছাড়াই করা হয়েছে বিধায় কর্মীরা হয়তো প্রতিবাদী হয়েছে। তিনি নিজে কাউকে প্রতিবাদ বা বিক্ষোভ করতে আদেশ দেননি। বর্তমান কমিটিকে প্রথমে তিন মাসের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল।
তবে তারা ৬ মাসের জন্য কমিটির মেয়াদ বাড়িয়ে নেয়। কিন্তু তারপরও তারা সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটির দায়িত্ব পালন করতে না পারায় তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ও অসন্তোষ বাড়ছে বলে জানান তিনি। অন্যদিকে বগুড়া জেলা আহাবায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য জয়নাল আবেদীন চান ও এম আর ইসলাম স্বাধীনের কাছে মন্তব্য জানতে চাইলে তারা কোন মন্তব্য করতে অস্বিকৃতি জানান ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বগুড়া-বিএনপি
আরও পড়ুন