Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

নাসিরনগরে ক্লিনিকে কিশোরীর মনর্মান্তিক মৃত্যু, আটক ৩

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ অক্টোবর, ২০২০, ১১:১৬ এএম

নির্মমভাবে ক্লিনিকে কিশোরীর পায়ের রড খোলার সময় মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে এক কিশোরীর। পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা না থাকায় ওই কিশোরীর মৃত্যু হয়।

জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগর উপজেলায় একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নাসরিন আক্তার নামে কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধের ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শনিবার (৩ অক্টোবর) রাত ৮ টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কাছে অবস্থিত মেঘনা মেডিক্যাল সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। ক্লিনিকে মারা যাওয়া নাসরিন আক্তার উপজেলার গোকর্ণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামের আনোয়ার আলীর মেয়ে।

এঘটনায় পুলিশ নজরুল ইসলাম নামে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাবেক ওয়ার্ড বয়সহ তিনজকে আটক করেছে।

নাসরিন আক্তারের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বছর খানেক আগে নাসরিন বাম পায়ে আঘাত পান। সে সময় তার বাম পায়ের হাঁটুর উপরের অংশের হাড় ভেঙ্গে যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। প্রায় এক বছর চার মাস ঢামেকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখানে তার পায়ে রড বসানো হয়।

শনিবার বিকেলে নাসরিনের পায়ের রড খোলার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থিত মেঘনা মেডিক্যাল সেন্টারে নিয়ে যায় পরিবারের লোকজন। এ ব্যাপারে নজরুল ইসলাম ৮ হাজার টাকায় পরিবারে সঙ্গে চুক্তি করেন।

শনিবার রাতে পায়ের রড খোলার সময় নাসরিন মারা যায়। এসময় নাসরিনের পরিবার রাস্তায় বিক্ষোভ ও অবরোধ শুরু করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নাসরিনের লাশ উদ্ধার করে ও নজরুলসহ তিনজকে আটক করে।

নাসরিনের মা রাশেদা বেগম জানান, নজরুলের অপরিপক্কতার জন্য তার মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। তিনি এ ঘটনার বিচারের দাবি করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অপমৃত্যু


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ