Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

কর্ণফুলী রক্ষায় সমন্বিত উদ্যোগের তাগিদ

দখল দূষণে নৌ সচিবের উদ্বেগ

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৩ এএম

চট্টগ্রাম বন্দরে গতকাল রোববার অনুষ্ঠিত এক সভায় বন্দরের ধারক কর্ণফুলী নদী বেপরোয়া দখল-দূষণে উদ্বেগ প্রকাশ করে নদী রক্ষায় সমন্বিত উদ্যোগের তাগিদ দেয়া হয়েছে। কর্ণফুলী নদীর দূষণ রোধ, নাব্যতা বৃদ্ধি ও অবৈধ দখল রোধ কল্পে নদী সংশ্লিষ্ট ষ্টেক হোল্ডারদের অংশগ্রহণে এ সভায় সভাপতিত্ব করেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সভায় যোগ দেন। নৌপরিবহন সচিব মেজবাহ উদ্দিন মূল চ্যানেলে কর্ণফুলী নদীর নাব্যতা বৃদ্ধি পেলেও খালসমূহ ভরাট হয়ে যাওয়ায় এবং দূষণ ও অবৈধ দখল বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি প্রতিটি সংস্থাকে তাদের প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে নদীর দূষণ রোধ এবং অবৈধ দখল প্রতিরোধের জন্য সমন্বিতভাবে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের নির্দেশনা দেন। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে এবং স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কর্ণফুলী নদীর দূষণ-দখল রোধে প্রণীত মাস্টারপ্ল্যান যথাসময়ে বাস্তবায়নের জন্য সংস্থা সমূহকে আরো উদ্যোগী হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। তিনি বলেন, কর্ণফুলী নদীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্টেক হোল্ডার হিসেবে চট্টগ্রাম বন্দরকে এ ব্যাপারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।
বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে কর্ণফুলী নদীর ভূমিকা অতুলনীয়। তাই ভবিষ্যতে এ নদীকে একদিকে দূষণ ও অবৈধ দখলের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে। নাব্যতা বৃদ্ধির মাধ্যমে আরো বৃহৎ সাইজের জাহাজ গমনাগমনের সুবিধা তৈরি করতে হবে। ব্যবসা বাণিজ্যের লাইফলাইন খ্যাত কর্ণফুলী নদীকে নান্দনিক রূপে ফিরিয়ে এনে অর্থনীতিতে আরো অধিক অবদান রাখার সুযোগ সৃষ্টির আহবান জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কর্ণফুলী-রক্ষা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ