Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ডিফরেন্ট স্ট্রোকস

প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অঙ্গ ভাঙে, মন নয়
দু’চোখে অলিম্পিক জয়ের স্বপ্ন নিয়ে দুজনেই এসেছিলেন রিওতে। তবে নিতির নির্মম পরিহাস, লড়াইয়ের আগেই একজনের হাত ভেঙেছে, আরেকজনের পা। বাছাই পর্বে নিজের ক্যারিশমা দেখাতে গিয়ে ফ্রান্সের জিমন্যাস্ট সামির আইত সাইদের বাঁ পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে ভয়ঙ্করভাবে ভেঙে গেছে। হাসপাতালে যখন একটু সুস্থ হলেন, তখনই হুঙ্কার দিলেন, ‘দেখা হচ্ছে টোকিও ২০২০ অলিম্পিকে!’ আরমেনিয়ান ভারোত্তোলক আন্দ্রানিক কারাপেতায়ার ভাগ্যটা আরো খারাপ। পদক থেকে মাত্র দুই ধাপ দূরে ছিলেন এই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন। ঠিক সেই সময় নিজের যোগ্যতা প্রমাণে ১৯৫ কেজি তুলেও নেন দুই হাতে। তবে ভারসাম্য বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেননি ২০ বছর বয়সী এই জিমন্যাস্ট, হাত ফসকে পেছন দিকে পড়ে যায় ভারটিই। পড়ে যায় অলিম্পিক স্বপ্নই। এই আঘাতে বাঁ হাতের কনুই থেকে ভেঙে যায় দু-টুকরো হয়ে। অলিম্পিক স্বপ্নের শেষ হয় হাসপাতালের বিছানায়। তবে মনের জোর কি ভেঙেছে এতটুকু! শুনুন তার মুখ থেকেই, ‘আমি আসছি।’ তার পেছনে থাকা কাজাখাস্তানের নিজাত রহিমভকে বিজয়ী ঘোষণা করে কমিটি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর