Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

মাগুরায় বিনা-১৬ জাতের ধান কর্তন

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে | প্রকাশের সময় : ৭ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৬ এএম

মাগুরা জেলায় আমন মৌসুমে প্রথম শস্য কর্তনের উদ্বোধন হয়েছে। সদর উপজেলার ছাচানী মাঠে স্বল্পমেয়াদী উচ্চ ফলনশীল বিনা-১৬ জাতের ধান কাটার মাধ্যমে এ শস্য কর্তনের উদ্বোধন করা হয়। বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট বিনা মাগুরা উপকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা তানজিলুর রহমান মন্ডলের সভাপতিত্বে শস্য কর্তনের উদ্বোধন ও এ উপলক্ষে আয়োজিত মাঠ দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন- জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক সুশান্ত কুমার প্রামানিক। বক্তব্য রাখেন-সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা নুসরাত কবির, বিনা মাগুরা উপকেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা রোকাইয়া সুলতানা, ও ফয়সাল আহম্মেদ, উপসহকারী কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান এবং বিনা-১৬ জাতের ধান চাষী স্থানীয় কৃষক আবুল হাসান। বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট বিনা মাগুরা উপকেন্দ্রে এ শস্য কর্তন ও মাঠ দিবসের আয়োজন করে। মাঠ দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা জানান, প্রচলিত জাতের ধান চাষে যেখানে ১২৫ থেকে ১৩০ সময় লাগে। সেখানে বিনা ১৬ জাতের ধান মাত্র ৮০ দিনে কৃষকের ঘরে উঠে। স্বল্প সময়ে এ ধান চাষের পর শীতকালীন রবি শস্য চাষের আগে পতিত জমি থেকে কৃষরা সহজেই একটি বাড়তি ফসল ঘরে তুলতে পারবেন। তাছাড়া বিনা-১৬ ধান স্বল্পমেয়াদী, উচ্চফলনশীল। রোগ বালাই কম হওয়ার পাশাপাশি সেচ, সারও কম লাগে। যে কারনে তারা বিনা-১৬ জাতের এ ধান সম্প্রসারণের কৃষকদের উদ্ধুদ্ধ করছেন। এ ধান চাষে শস্য নিবিড়তা বাড়ায় যেমন কৃষরা লাভবান হবেন। তেমনি দেশের খাদ্য উৎপাদনও বৃদ্ধি পাবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন