Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নোয়াখালীতে বিবস্ত্র করে গৃহবধূ নির্যাতন দেলোয়ারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৭ অক্টোবর, ২০২০, ১:২১ পিএম

বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নে সন্ত্রাসী দেলোয়ার মামা বাহিনীর নির্যাতনের শিকার ওই নারীকে (৩৬) এক বছর আগে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একাধিক বার ধর্ষণ করেছে দেলোয়ার। এ ঘটনায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে দেলোয়ারকে প্রধান আসামী ও তার সহযোগি আবুল কালামকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এদিকে অস্ত্র ও ককটেল উদ্ধারের ঘটনায় দেলোয়ারের বিরুদ্ধে অস্ত্র এবং বিষ্ফোরক আইনে আরও দুইটি মামলা করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার রাতে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় এ মামলা গুলো দায়ের করা হয়। এদিকে গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার গভীর রাতে একলাশপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে সোহাগ ও নূর হোসেন রাসেল নামের আরও দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ।

পুলিশ জানায়, দেলোয়ার হোসেন দেলু ও তার সহযোগি আবুল কালামের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিতা ওই গৃহবধূ। মামলা নং-১০। মামলা তিনি উল্লেখ করেন গত ২০১৯সালের ৫অক্টোবর রাত আনুমানিক ১১টার সময় দেলোয়ার হোসেন দেলু জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের খাল পাড়ের তার বসত ঘরে প্রবেশ করে। দেলোয়ার ঘরে প্রবেশ করে তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক না করলে তার বাহিনীর ছেলেদের দিয়ে তাকে গনধর্ষণ করাবে বলে হুমকি দেয়। গনধর্ষণ হওয়ার ভয়ে তিনি দেলোয়ারের কু-প্রস্তাবে রাজি হলে দেলোয়ার তাকে ধর্ষণ করে। এসময় তিনি ঘরে একাই ছিলেন। গত ২০২০ সালের ৭এপ্রিল সন্ধ্যার সাড়ে ৬টা থেকে ৭টা দিকে আবুল কালাম তার ঘরে এসে বলে দেলোয়ার তাকে দেখা করতে বলছে। পরে আবুল কালাম তাকে একটি নৌকা যোগে বাড়ীর পাশের একটি বিলে নিয়ে যায়। পরে নৌকায় থাকা দেলোয়ার ও আবুল কালাম তাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করলে তিনি কাকুতিমিনতি করলে কালামকে টাকা দিয়ে সরিয়ে দিয়ে দ্বিতীয় বার তাকে ধর্ষণ করে দেলোয়ার।

জেলা পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ঘটনায় গত রাতে দুই জনসহ এ পর্যন্ত ৭জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়াও ঢাকার নারায়ণগঞ্জ থেকে অস্ত্রসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তারকৃত দেলোয়ারকে আগামী ১৩ অক্টোবর নোয়াখালী আদালতের হাজির করা হবে। অপর আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যহত রয়েচে। এছাড়াও ঘটনার সাথে জড়িত কোন ব্যক্তিকে ছাড় দেওয়া হবে না।

প্রসঙ্গত,গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ওই নারীর আগের স্বামী তার সাথে দেখা করতে তার বাবার বাড়ী একলাশপুর ইউনিয়নের জয়কৃষ্ণপুর গ্রামে এসে তাদের ঘরে প্রবেশ করেন। বিষয়টি দেখে পেলে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী ও দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ার। রাত ১০টার দিকে দেলোয়ার তার লোকজন নিয়ে ওই নারীর ঘরে প্রবেশ করে পর পুরুষের সাথে অনৈতিক কাজ ও তাদের কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে মারধর শুরু করেন। এক পর্যায়ে পিটিয়ে নারীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারন করে। ৪ অক্টোবর দুপুরে ওই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েল জেলায় তথা দেশ ব্যাপী তোলপাড় সৃষ্টি হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন