Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

বিপদসীমার নিচে সব নদী : ভাঙন অব্যাহত

চার মাস পর শেষ দফায় বন্যার উন্নতি : নদ-নদীসমূহের ৮০ পয়েন্টে পানি হ্রাস

শফিউল আলম | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

 দেশের প্রধান সব নদ-নদীর পানি অবশেষে বিপদসীমার নিচে প্রবাহিত হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে করতোয়া নদীর পানি চক রহিমপুর পয়েন্টে সর্বশেষ বিপদসীমার ২৯ সে.মি. নিচে দিয়ে প্রবাহিত হয়। প্রধান নদ-নদীসমূহের ৮০টি পয়েন্টে পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে। এরফলে দীর্ঘস্থায়ী এবারের বন্যার ৪ মাস পর এবং শেষ দফায় বন্যার প্রায় তিন সপ্তাহ পর প্রধান সব নদ-নদীর পানি গতকাল বিপদসীমার নিচে নামলো।
গত কয়েকদিনে উজানে ভারতে এবং দেশের অভ্যন্তরে তেমন বৃষ্টিপাত না থাকায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। তাছাড়া এ মুহূর্তে বঙ্গোপসাগরে কোনো লঘুচাপ-নিম্নচাপের ঘনঘটা নেই। এরফলে বানের পানি ভাটি ও মোহনা হয়ে নামছে সমুদ্রের দিকে। গত চার মাসে দেশের ৩৩টি জেলার কোথাও পাঁচ দফায়, কোথাও তিন-চার দফায় বন্যা কবলিত হয়।

বানের পানি দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-মধ্যাঞ্চল, মধ্যাঞ্চল হয়ে ভাটির দিকে নামছে ক্রমাগত। ভাটিতে পদ্মা-মেঘনার মোহনায় পর্যন্ত পানির প্রবল চাপ ও ঘূর্ণিস্রোত সৃষ্টি হয়েছে। সেই সঙ্গে অব্যাহত রয়েছে তীব্র নদীভাঙন। বন্যার পানি ভাটি হয়ে বঙ্গোপসাগরের দিকে হ্রাসের সঙ্গেই পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, আত্রাই, করতোয়া, তিস্তা, ধরলা, ঘাঘট, ধলেশ^রীসহ অনেক নদ-নদীর উভয় তীরে প্রচন্ড ভাঙন দেখা দিয়েছে।
নদীভাঙনে প্রমত্তা নদ-নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে দুই তীরের বসতভিটে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, সড়ক রাস্তাঘাট, হাটবাজার, ফল-ফসলি জমি, সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা, ক্ষেত-খামার। এ বছর দীর্ঘস্থায়ী বন্যায় দফায় দফায় এবং নজিরবিহীন নদীভাঙনে নিঃস্ব আশ্রয়হারা হয়েছে অগণিত মানুষ। প্রতিদিনই তারা ছুটছে আশ্রয়ের সন্ধানে এখানে-সেখানে।

পাউবো’র বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র সূত্র গতকাল জানায়, দেশের প্রধান নদ-নদীসমূহের পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে, যা আগামী ২৪ ঘণ্টায় অব্যাহত থাকতে পারে। নদ-নদীসমূহের ১০১টি পানির সমতল পর্যবেক্ষণ স্টেশনের মধ্যে গতকাল ৮০টি পয়েন্টে পানি হ্রাস ও ১৭টি পয়েন্টে বৃদ্ধি পায়। ৪টি পয়েন্টে পানির সমতল অপরিবর্তিত রয়েছে। করতোয়া নদীর পানি চক রহিমপুরে বিপদসীমার নিচে নেমে যাওয়ার পর আর কোন পয়েন্টে নদ-নদী বিপদসীমার ঊর্ধ্বে নেই। বুধবার নদ-নদীর ৬১টি পয়েন্টে পানি হ্রাস ও ৩৪টিতে বৃদ্ধি পায়। ৬টি পয়েন্টে অপরিবর্তিত থাকে।

এদিকে উত্তর-পূর্ব ভারতের আসাম, মেঘালয়, অরুণাচল, পশ্চিমবঙ্গ ও হিমালয় পাদদেশীয় এলাকাসমূহ এবং তিব্বতসহ চীন, নেপাল, ভারতের বিহারসহ মধ্যাঞ্চলে গত কয়েকদিনে উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়নি। তাছাড়া সিলেট বিভাগসহ দেশের উত্তর, মধ্যাঞ্চল ও অন্যান্য অঞ্চলে গত ২৪ ঘণ্টায় তেমন বৃষ্টিপাত ছিল না। বর্ষণ স্তিমিত থাকায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি অব্যাহত রয়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নদী

২৬ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন