Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

খারাপ সময় পেরিয়ে বিশ্ব ঘুরে দাঁড়াচ্ছে তেলবাজার

বললেন আরামকো প্রধান আমিন নাসের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০২ এএম

সউদী আরামকোর প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী আমিন নাসের জ্বালানী ব্যবসায় তার দেখা সবচেয়ে দুঃসময় কাটিয়ে বৈশ্বিক তেল বাজারে অব্যাহত উন্নতির প্রত্যাশা করছেন। এ সপ্তাহে একটি সম্মেলনের আগে নাসের এনার্জি ইন্টেলিজেন্স-এর সাথে কথা প্রসঙ্গে বলেন, বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক লকডাউনে তেলের চাহিদা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সময় গত ছয় মাসের ঘটনাগুলি অপরিশোধিত বাজারে অন্য কোনও চক্রীয় মন্দার মতো নয়।

‘এটি সম্পূর্ণ আলাদা। আমার প্রজন্ম এ জাতীয় কিছু দেখেনি। আমি মনে করি না পৃথিবী এরকম কিছু দেখেছে। আপনি যদি অর্থনৈতিক প্রভাব এবং বিশ্বজুড়ে কী ঘটে থাকে তা যদি পর্যালোচনা করেন তবে এটি স্পষ্টভাবে তাৎপর্যপূর্ণ’ -তিনি বলেন।
তবে তিনি বলেন যে, কোভিড-১৯ মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাবের হুমকি সত্তে¡ও এমন লক্ষণ রয়েছে যেগুলো সবচেয়ে খারাপ সময় অতীত হয়ে গেছে। তিনি বলেন, ‘এ পর্যায়ে আমরা পুনরুদ্ধার দেখতে পাচ্ছি, তবে যদি দ্বিতীয় তরঙ্গ হয়, অবশ্যই এটি নির্ভর করছে কত দ্রুত কোভিড-এর ভ্যাকসিন সহজলভ্য হয়। আমরা কিছু ভাল লক্ষণ দেখতে পাচ্ছি এবং আমরা পরের বছর চতুর্থ প্রান্তিকে আরও ভাল বাজার দেখার প্রত্যাশা করছি’।
এপ্রিলে দৈনিক বিশ্বব্যাপী চাহিদা প্রতিদিনের প্রায় ১০০ মিলিয়ন ব্যারেল (বিপিডি) থেকে ৮০, এমনকি ৭৫ মিলিয়নে নেমে যায় এবং ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট ক্রুড আমেরিকান বেঞ্চমার্ক হ্রাস পেয়ে মাইনাস ৪০ ডলারে নেমে আসে। এর অর্থ উৎপাদকরা গ্রাহকদের তেল নেওয়ার জন্য অর্থ দিতেন। নাসের বলেন, ‘এটা দেখে উৎসাহ হয় যে, সবচেয়ে খারাপ সময় শেষ হয়েছে এবং অস্বাভাবিকভাবে নিম্নস্তর থেকে চাহিদা খুব দ্রæত ফিরে এসেছে। আন্তর্জাতিক শক্তি সংস্থা থেকে পূর্বাভাসের দিকে নজর দিলে তারা এ বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকের মধ্যে ৯৬ মিলিয়ন এবং পরের বছরের শেষদিকে ৯৯ মিলিয়নে চাহিদা পুনরুদ্ধারের ইঙ্গিত দিচ্ছে’ ।

তিনি আরও যোগ করেছেন, বিশেষত এশিয়ার মধ্যে এ পুনরুদ্ধার শক্তিশালী ছিল। ‘আমরা এশিয়াতে, বিশেষত চীন, যা আমাদের বৃহত্তম বাজার, যা দেখছি তা একটি শক্তিশালী পুনরুদ্ধার। চীনে জেট জ্বালানী ব্যতীত তেল পণ্যগুলোর প্রায় সমস্ত চাহিদা প্রাক-কোভিড স্তরে ফিরে এসেছে’।

আরামকো, যা গত বছরের জন্য বিশ্বের সর্বাধিক মূল্যবান তেল সংস্থা হিসাবে সউদী আরব শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছিল, কম দাম থেকে রাজস্ব হ্রাসের আলোকে তার আর্থিক অবস্থান পর্যবেক্ষণ করছে।
নাসের বলেন, ‘আমরা আমাদের ব্যয় শৃঙ্খলা জোরদার করেছি এবং মূলধনের নমনীয়তার দিকে মনোনিবেশ করছি। পুঁজি ব্যয়ের বিষয়টি যখন আমরা কঠোরভাবে মূলধন শৃঙ্খলা মেনে চলি তখন আমরা অত্যন্ত বুদ্ধিমান হয়ে থাকি। আমরা আমাদের সমস্ত প্রকল্পের দিকে নজর দিচ্ছি এবং যেখানে প্রয়োজন সেখানে কিছু বিচক্ষণতার সাথে প্রসারিত করছি, যেখানে আমাদের সর্বোচ্চ ১২ মিলিয়ন বিপিডির টেকসই ক্ষমতা বজায় রাখা হচ্ছে। এছাড়াও, আমরা সউদী আরবে আমাদের গ্যাসের পোর্টফোলিও প্রসারিত করে চলেছি’।

এনার্জি ইন্টেলিজেন্স জানিয়েছে, আগামী সপ্তাহে সম্মেলনে একটি অনুষ্ঠানে নাসেরকে ২০২০ সালের এনার্জি এক্সিকিউটিভ হিসাবে মনোনীত করা হবে। ‘নাসের সউদী আরব এবং বিশ্বব্যাপী তেল বাজারে সাধারণভাবে যথেষ্ট পরিবর্তন ও উত্থান ঘটানোর সময়কালে বিশ্বের বৃহত্তম তেল সংস্থাকে নির্দেশনা দিয়েছেন’। সূত্র : আরব নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী আরব


আরও
আরও পড়ুন