Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪ আষাঢ় ১৪২৮, ০৬ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

পাঁচজনের ফাঁসির আদেশ

জয়পুরহাটে শিশু অপহরণ ও হত্যার রায়

জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০২ এএম

শিশু অপহরণ ও হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ৫ জনকে যাবজ্জীবন ও মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রায়ব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলী। গতকাল দুপুরে তিনি এ রায় ঘোষণা করেন। একই সাথে বিচারক মামলার পলাতক এক আসামির ৫ লাখসহ অন্যদের ৩ লাখ টাকা করে জরিমানারও আদেশ দিয়েছেন। আদালতের এ রায় পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মামলার বাদি নিহত শিশুর বাবা পরেশ চন্দ্র।
আদালত সূত্র জানা গেছে, গত ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর দুপুরে পাঁচবিবি উপজেলার রশিদপুর মোলান গ্রামের পরেশ চন্দ্রের আড়াই বছরের শিশুকন্যা আরাধা রাণী বাড়ির পাশে খেলাধুলা করার সময় নিখোঁজ হয়। পরে শিশুটির বাবা পরেশ চন্দ্র ওই দিনই পাঁচবিবি থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেন। ২৫ ডিসেম্বর ভোরে পুলিশ শিশুটির লাশ বাড়ির অদূরে মোলান বাজারের পাশে একটি পুকুর পাড় থেকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ শিশুটির প্রতিবেশি উত্তম কুমার, বিরেশ চন্দ্র ও সন্তোষ সরকার এবং বিনধারা গ্রামের মোস্তাফিজুর ও ওবায়দুলকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিলে তারা জানায় মুক্তিপণ আদায়ের জন্য শিশুটিকে ২২ ডিসেম্বর দুপুরে অপহরণের পর মুখ ও হাত স্কচ টেপ দিয়ে বেঁধে আসামি বিরেশ চন্দ্রের বাড়িতে বাক্সবন্দি করে রাখা হয়। পরে সেখানেই শিশুটি মারা গেলে ২৪ ডিসেম্বর গভীর রাতে শিশুটির লাশ বাড়ির অদূরে একটি পুকুর পাড়ে ঢিলের নিচে চাপা দিয়ে তারা পালিয়ে যায়। আসামি ৫ জনের মধ্যে উত্তম কুমার নামের একজন পলাতক থাকলেও অন্য চারজন জয়পুরহাট জেলা কারাগারে আছেন।
এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক উভয় পক্ষের শুনানি শেষে গতকাল রায় প্রদান করেন। রায়ে ৫ জনকেই অপহরণ ও হত্যার অভিযোগে যাবজ্জীবন এবং মৃত্যুদন্ডাদেশসহ পলাতক আসামি উত্তম কুমারের ৫ লাখ এবং অন্য প্রত্যেক আসামির ৩ লাখ টাকা করে জরিমানা করেন।
সরকার পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ সরকারি কৌসুলি ফিরোজা চৌধুরী, নন্দ কিশোর আগরওয়ালা ও মোস্তাফিজুর রহমান। আর আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন রফিকুল ইসলাম, আফজাল হোসেন, হেনা কবির, শহিদলু ইসলাম ও আবু কাউছার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন