Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭, ১১ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ ঢাকায় আসছেন

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:৪৫ পিএম | আপডেট : ১:০২ পিএম, ১৩ অক্টোবর, ২০২০

তিনদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে আজ ঢাকায় আসছেন যুক্তরাষ্ট্রের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন ই. বিগান। বর্তমানে তিনি ভারতে অবস্থান করছেন, সেখান থেকে বাংলাদেশে আসবেন।
ঢাকায় অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবার তিনি ঢাকায় আসবেন।

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, স্টিফেন ই. বিগান সফরকালে বাংলাদেশের ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন এবং আলোচনার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশের অংশীদারিত্বের বিষয়টি পুনঃনিশ্চিত করবেন।

বাংলাদেশের সফরে বিগান সবার সমৃদ্ধির জন্য একটি স্বাধীন, অবাধ, অন্তর্ভুক্তিমূলক, শান্তিপূর্ণ ও নিরাপদ ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল গড়ে তোলার বিষয়ে আলোচনা করবেন। পাশাপাশি কোভিড-১৯ মোকাবিলা ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে যৌথ সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করবেন মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে, স্টিফেন ই বিগানের সফরে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বিষয়টি গুরুত্ব পাবে বলে সোমবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা সফরের সময় বাংলাদেশ রোহিঙ্গা ইস্যু উত্থাপন করবে এবং মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন চাইবে। আমাদের মূল মনোযোগ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে। রোহিঙ্গাদের অবশ্যই ফিরে যেতে হবে।

ড. মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ মানবিক সহায়তায় আগ্রহী। এটি একটি অংশ, তবে মূল অংশ নয়। বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সংকটের শিকার। এর মূল খেলোয়াড়দের আলোচনায় অংশ নিতে হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের নিয়ে দীর্ঘমেয়াদী সহায়তার পরিকল্পনার সঙ্গে ভিন্নমত জানিয়ে বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের মূল ফোকাস।

কক্সবাজার রোহিঙ্গা শিবিরে সংঘর্ষের কথা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাদের শিবিরগুলো নিয়ন্ত্রণে নিতে হবে।

এদিকে, ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, স্টিফেন ই. বিগান ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশে অবস্থান করবেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ