Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

হালদায় আরো একটি মৃত ডলফিন!

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০২০, ৪:৩৪ এএম

প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদী থেকে আরও একটি মৃত ও অর্ধগলিত ডলফিন উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) রাত সোয়া ৮টার দিকে প্রশাসনের উপস্থিতিতে উদ্ধারের পর ডলফিনটি মাটিচাপা দেয়া হয়েছে। এর আগে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে হালদা নদীর রাউজান অংশে স্থানীয়রা ডলফিনটি মৃত ও অর্ধগলিত অবস্থায় দেখতে পান।

লেজকাটা ডলফিনটির স্কোয়ার আড়াই ফুট, লম্বা সাড়ে ৩ ফুট। এটির পেটে, একপাশে চারটি দাগসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করার মতো দাগ রয়েছে। লেজের একটি অংশ কুপিয়ে চেটে ফেলা হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘হালদা নদী রক্ষা কমিটি’র রাউজান অংশের সভাপতি রোশাঙ্গীর আলম বলেন, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আজিমের ঘাটের পাথরের ব্লকে মৃত ও অনেকটা অর্ধগলিত ডলফিনটি দেখতে পাই। এরপর হালদা বিশেষজ্ঞ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরীয়া, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা মৎস্য অফিস ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবগত করি। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার আবদুল্লাহ আল মামুন ভুইয়া, ইউপি চেয়ারম্যান লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, বন বিভাগের সদস্য, আইডিএফসহ সংশ্লিষ্ট অনেকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। ডলফিনটি দেখতে এলাকার কয়েকশ’ জনতাও উপস্থিত হয়। এরপর রাত সোয়া ৮টার দিকে ডলফিনটি উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার আবদুল্লাহ আল মামুনসহ সংশ্লিষ্ট সবার উপস্থিতিতে ডলফিনটি উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তি একটি স্থানে মাটিচাপা দেয়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে, নদীতে ভাটার সময় ডলফিনটি এখানে এসে আটকে যায়।

উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার আবদুল্লাহ আল মামুন ভুইয়া বলেন, উদ্ধারকৃত ডলফিনটি পঁচে যাওয়ায় তা থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। ডলফিনটির গায়ে প্রচুর আঘাতের চিহ্ন আছে। বন বিভাগ, আইডিএফ, পুলিশসহ স্থানীয় জনসাধারনের উপস্থিতিতে সেটি মাটিচাপা দেয়া হয়েছে। বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নদীতে অবৈধভাবে চলাচলকারী বালু উত্তোলনের ড্রেজার, ইঞ্জিনচালিত নৌকার আঘাতে ডলফিনটির মৃত্যু হয়েছে। বেশ কয়েকদিন আগে ডলফিনটির মৃত্যু হয়েছে। হয়তো মঙ্গলবার এখানে এসে আটকে গেছে।’

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরীয়া বলেন, মাছ ধরার জালে আটকে পড়ার কারনে ডলফিনটিকে কুপিয়ে জাল থেকে ছাড়া হয়েছে। এ কারণে ডলফিনটির মৃত্যু হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত ডলফিন
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ