Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

পাকিস্তান-চীন-রাশিয়ার জয়

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০২ এএম

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে জিতলো রাশিয়া ও চীন। কিছু মানবাধিকার গোষ্ঠীর প্রবল বিরোধ সত্তে¡ও জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের ভোটে জিতে সদস্যপদ পেল রাশিয়া, চীন ও কিউবা। সউদী আরবের ক্ষেত্রেও মানবাধিকার সংগঠনগুলির প্রবল আপত্তি ছিল। সউদী শেষ পর্যন্ত জিততে পারেনি। ভৌগোলিক এলাকা ধরে আলাদা গ্রæপ করা হয়েছিল। এশিয়া প্যাসিফিক গ্রæপ থেকে চারজনের জেতার কথা ছিল। প্রতিযোগিতা ছিল পাঁচটি দেশের মধ্যে। পাকিস্তান, চীন, উজবেকিস্তান, নেপাল ও সউদী আরব। ভোট হয়েছে গোপন ব্যালটে। মোট ভোট ছিল ১৯৩টি। পাকিস্তান পেয়েছে ১৬৯টি ভোট, উজবেকিস্তান ১৬৪টি, নেপাল ১৫০টি, চীন ১৩৯টি। সউদী আরব পেয়েছে ৯০টি ভোট। ২০২১-এর ১ জানুয়ারি থেকে নতুন সদস্যদের কার্যকাল শুরু হবে।
সউদী আরবকে নিয়ে মানবাধিকার সংগঠনগুলির প্রবল আপত্তি ছিল। সাংবাদিক খাসোগির হত্যা থেকে শুরু করে সা¤প্রতিক সময়েও একাধিক ঘটনার উল্লেখ করে তাদের বক্তব্য ছিল, সউদী আরবে মানবাধিকার, মেয়েদের অধিকার ও বিরোধের অধিকার রক্ষা করা হয় না।
গত সপ্তাহে ইউরোপ, অ্যামেরিকা, ক্যানাডার মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলির জোট জানিয়েছিল, পাকিস্তান, চীন, রাশিয়া, সউদী আরব, কিউবার যে ট্র্যাক রেকর্ড, তাতে তারা জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য হতে পারে না। তাদের সদস্য করা মানে, অগ্নিসংযোগকারীদের আগুন নেভানোর দায়িত্ব দেয়া।
হিউম্যান রাইটস ওয়াচের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সউদী আরবের হার থেকে বোঝা যাচ্ছে, জাতিসংঘে আরো বেশি প্রতিদ্ব›িদ্বতা হওয়া দরকার। আরো প্রার্থী থাকলে চীন, কিউবা, রাশিয়াও হারত। তবে এই দেশগুলি সদস্য হওয়ার পরেও জাতিসংঘের এই সংগঠন মানবাধিকার ভঙ্গের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবে এবং অত্যাচারিতদের পক্ষে কথা বলবে।
অ্যামেরিকা অবশ্য ২০১৮ সালে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল থেকে বেরিয়ে গেছে। তাদের অভিযোগ ছিল, কাউন্সিলে ইসরাইলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতমূলক ব্যবহার করা হচ্ছে। তাছাড়া কাউন্সিলেরও সংস্কার দরকার বলে দাবি করেছিল অ্যামেরিকা। সূত্র : এপি, রয়টার্স।

 

 



 

Show all comments
  • Gias uddin ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৬ এএম says : 1
    মানবাধিকার কাউন্সিলে যে দেশগুলো জিতেছে তারা নিজেরা নিজ দেশেই মানবাধিকার রক্ষা করতে পারে নি। সেটা বোঝা গেল কিন্তু এদেরকে যারা ভোট দিয়ে জিতিয়ে দিল,তারতো এদেরই দোসর, তা না হলে কেন তাদের পক্ষে ভোট দিল! ভাইরে, রাজনীতি মানবাধিকারের তোয়াক্কাই করে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Habib ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৭ এএম says : 1
    সৌদি আরব যে একটি নিপীড়ক রাষ্ট্র এবং তার শাসকরা যে অবৈধ তা বিশ্ববাসী বিশ্বাস করতে শুরু করেছে। এই ভোট তার প্রমাণ। সৌদি রাজবংশ আসলে একটি criminal syndicate.
    Total Reply(0) Reply
  • Kader sheikh ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৭ এএম says : 0
    অভিনন্দন পাকিস্তান কে
    Total Reply(0) Reply
  • Bayanno ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৭ এএম says : 0
    চীন মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃত্বের ভূমিকায় অবতীর্ণ হচ্ছে। তারা যে উইগু জাতি গোষ্ঠীর নিধন করছে। তা কি মানবাধিকার লঙ্ঘন নয়। কে বলেছে আমারা সভ্য ও উন্নত হচ্ছি। দিনের পর দিন আমরা পেছনে ফিরে যাচ্ছি
    Total Reply(0) Reply
  • Liakat Ali ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৮ এএম says : 0
    পাকিস্তানের জয় কাম্য ছিল। মুসলিম বিশ্ব থেকে সৌদির জনপ্রিয়তা কমে গেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Unit chief ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:২৯ এএম says : 0
    সৌদি আবার মানবাধিকার কি বুঝে! যেখানে জামাল খাসোগি কে অত্যন্ত নির্মমভাবে হত্যা করল এখন আসছে মানবাধিকার কাউন্সিলে প্রতিনিধিত্ব করতে
    Total Reply(0) Reply
  • Foyej sheikh ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৩:৩০ এএম says : 0
    বর্তমান বিশ্বে মানবাধিকার লঙ্ঘন কম আর বেশি সব দেশেই হচ্ছে। তবে সৌদি আরবের জন্য ঠিক আছে মানবাধিকার এর সদস্য পদ না পেয়ে। শুধু সৌদি আরব না, আরবের প্রতিটি দেশকেই মানবাধিকার সদস্যর পদ থেকে ব্যান করা উচিৎ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাশিয়া


আরও
আরও পড়ুন