Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আংশিক মুক্ত আশরাফুলের শুকরিয়া

প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) ‘টু’তে আশরাফুলের বিরুদ্ধে আকসু আনীত স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ হয়েছে প্রমাণিত। অভিযুক্ত আশরাফুলও স্বীকার করেছেন তার বিরুদ্ধে আনীত এই অভিযোগ। বিসিবি গঠিত ট্র্যাইব্যুনালে প্রমাণিত হওয়ায় প্রথমে ৮ বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে এবং পরবর্তীতে আপীলে ৩ বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে হয়েছেন নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান এবং বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক গতকাল হয়েছেন মুক্ত। তবে সব ধরনের ক্রিকেটে পূর্ণ মুক্তির স্বাদ পেতে আরো অপেক্ষায় থাকতে হবে আশরাফুলকে। আইসিসি’র শর্ত অনুযায়ী ৫ বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা থাকায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে থাকতে হবে তাকে, পাশাপাশি ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক আসর বিপিএলেও আগামী ২ বছর খেলতে পারবেন না আশরাফুল। আংশিক মুক্ত আশরাফুলের ঘরোয়া ক্রিকেটে অন্য সব আসরে খেলতে বাধা নেই, তবে তার জন্য শর্ত পূরণ করে আইসিসি’র সার্টিফিকেট পেতে হবে। নিষেধাজ্ঞা থেকে গতকাল আশরাফুলের মুক্তির দিনে মিডিয়াকে এ তথ্যই দিয়েছেন বিসিবি সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজনÑ‘আশরাফুলের নিষেধাজ্ঞা ১৩ আগস্ট শেষ হয়ে যাবার কথা, তবে এ ব্যাপারে কিছু কন্ডিশন ছিল। তা পূর্ণ করতে পারলে আইসিসি থেকে সার্টিফিকেট অব গুড কন্টাক্ট দেওয়া হবে। ওই সার্টিফিকেট পেলে বিপিএল ছাড়া সে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে পারবে।’
শর্তসাপেক্ষে তিন বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে গতকাল মুক্ত আশরাফুল আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক আসর বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগে (বিসিএল) খেলার জন্য প্রতীক্ষার প্রহর গুণছেন। তবে আসরটি যেহেতু ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক, তাই এই আসরে খেলার জন্য আইসিসি’র অনুমতির প্রয়োজন পড়ছে বলে মিডিয়াকে জানিয়েছেন বিসিবি সিইওÑ ‘আশরাফুল ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক কোনো টুর্নামেন্টে খেলতে পারবে না। বিসিএল যেহেতু ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক, তাই এই টুর্নামেন্টে সে খেলতে পারবে কি না, এই বিষয়টি পরিস্কার করতে আমরা আইসিসির কাছে একটা ই-মেইল পাঠিয়েছি। এর উত্তর পেলেই বলা যাবে সে এ টুর্নামেন্টে খেলতে পারবে কি না।’
এদিকে গতকাল ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফিরে মুক্তির আনন্দে বিসিবি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেনÑ ‘খুবই ভাল লাগছে, নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে বিসিবি’র অধীনে ক্রিকেট খেলতে পারব। তাই বিসিবি ও দেশের মানুষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’ নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলেও ঘরোয়া ক্রিকেটের বড় আসরগুলোতে খেলতে অপেক্ষায় থাকতে হবে, আইসিসি’র সেই শর্তটা তার জানা। তা মেনে নিয়ে নিজেকে তৈরি করতে চান আশরাফুলÑ ‘নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলেও বড় আসরে অংশ নিতে অপেক্ষা করতে হবে তা জানি। লড়াই করেই জায়গা নিতে হবে। সে মানসিক প্রস্তুতি আছে আমার।’
বয়স এখন ৩২, আর কতোদিনই বা খেলতে পারবেন ক্রিকেট? তবে ৬১ টেস্ট ১৭৮ ওয়ানডে এবং ২৩টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন আশরাফুল এখনো স্বপ্ন দেখেন জাতীয় দলে ফেরার। তার জন্য যে কোন মূল্যে একটার পর একটা হার্ডল পাড়ি দিতে বদ্ধপরিকর বাংলাদেশের ক্রিকেটের এই বিস্ময় বালকÑ‘ আমার পরবর্তী স্বপ্ন জাতীয় দলে খেলা। সে স্বপ্নই দেখছি আমি। তার জন্য যে স্টেপগুলো আছে, তা পূরণ করতে চাই। দেশের হয়ে আমার কিছু সেরা ইনিংস আছে। তবে আমি মনে করি আমার এখনও সেরাটা দেওয়ার বাকি। আর আমি সেরাটা দিয়েই সবার মন জয় করতে চাই।’
টেস্টে ৬ এবং ওয়ানডেতে ৩ সেঞ্চুরির মালিকের লক্ষ্য এখন একটাই শারীরিক এবং মানসিক প্রস্তুতিÑ‘লড়াই করেই জাতীয় দলে জায়গা পেতে হবে, তা জানি। সেভাবেই নিজেকে তৈরি করছি।’
মুক্তির আনন্দে এবার ৬ সেপ্টেম্বরটা একটু অন্যভাবেই উদযাপন করবেন আশরাফুল। গত তিন বছর এই স্মরণীয় দিনটা বড়ই পানসে কেটেছে, এবার মুক্ত আশরাফুল পালন করতে পারবেন দিনটি অন্যভাবে। আজ থেকে ১৬ বছর আগে যে দিনে ১৭ বছর ৬১ দিন বয়সে সিংহলীজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে টেস্ট ইতিহাসে সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ানের ইতিহাস রচনা করেছেন আশরাফুল।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন