Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭, ১১ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জরুরি অবস্থা উপেক্ষা করে থাইল্যান্ডে বিক্ষোভ চলছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০২০, ৯:২১ এএম

থাইল্যান্ডে জরুরি অবস্থা উপেক্ষা করে আবারো রাজপথে জড়ো হয়েছেন সরকার বিরোধী হাজার হাজার বিক্ষোভকারী। তারা গণহারে গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়ে ‘আমাদের বন্ধুদের ছেড়ে দাও’ বলে স্লোগান দিয়েছেন। বুধবার তিন নেতাসহ অন্তত ২০ বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করেছে থাই পুলিশ।

বিক্ষোভকারীদের অনেক তিন-আঙ্গুলের স্যালুট দিয়ে তাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিন-আঙ্গুলের স্যালুট ছাত্র-নেতৃত্বাধীন চলমান সরকার বিরোধী বিক্ষোভের প্রতীকে পরিণত হয়েছে। রাজধানী ব্যাংককে বুধবারের ব্যাপক বিক্ষোভের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে সারাদেশে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।

এ সংক্রান্ত এক ডিক্রিতে চারজনের বেশি লোকের সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, দেশে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করতে হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে তিন-আঙ্গুলের স্যালুট ছাত্র-নেতৃত্বাধীন চলমান সরকার বিরোধী বিক্ষোভের প্রতীকে পরিণত হয়েছে। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা সরকারি আদেশ অমান্য করে বৃহস্পতিবার দুপুরের পর ব্যাংককের রাতচাপরাসং এলাকায় জড়ো হতে থাকে এবং রাতে ওই এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

থাই প্রধানমন্ত্রী প্রিয়ুথ চান-ওচার পদত্যাগের দাবিতে মূলত এ বিক্ষোভ হচ্ছে। সাবেক সেনাপ্রধান চান-ওচা ২০১৪ সালে এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করেন এবং গত বছর এক বিতর্কিত নির্বাচনের মাধ্য ‘নির্বাচিত’ প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

সাম্প্রতিক সময়ে বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের পাশাপাশি থাই রাজা ভাজিলারংকর্নের ক্ষমতা সঙ্কুচিত করারও দাবি জানাচ্ছেন। রাজা ইদানিং বেশিরভাগ সময়ই বিদেশ সফরে কাটাচ্ছেন। থাইল্যান্ডে রাজতান্ত্রিক সংস্কার আনার দাবি অনেকটা স্পর্শকাতর। কারণ দেশটির আইন অনুযায়ী রাজার সমালোচনা করলে দীর্ঘমেয়াদে কারাদণ্ড দেয়ার বিধান রয়েছে।

সূত্র: পার্সটুডে



 

Show all comments
  • Ibrahim ১৬ অক্টোবর, ২০২০, ১১:৫৯ এএম says : 0
    আশাকরি ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশে ও এরকমই একটা হবে আল্লাহ তৌফিক দিলে আমি ও থাকতে চাই
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: থাইল্যান্ড


আরও
আরও পড়ুন