Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

কলারোয়ায় চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার মামলায় নিহতের ছোট ভাইকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০২০, ৫:০৮ পিএম

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় দুই শিশু সন্তানসহ একই পরিবারের চারজনকে হত্যার চাঞ্চল্যকর মামলাটি তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। দায়িত্ব নিয়েই সিআইডি পুলিশ নিহত শাহিনুরের ছোট ভাই রায়হানুলকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক সফিকুল ইসলাম।

কলারোয়া থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারান চন্দ্র পাল জানান, হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামে একই পরিবারের চারজনকে কুপিয়ে ও জবাই কওে হত্যার ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। মামলা নং-১৪। মামলার বাদী হয়েছেন, নিহত শাহিনুর রহমানের শাশুড়ি ময়না খাতুন। তিনি জানান, মামলাটি তদন্ত করবে সিআইডি।

এদিকে, সাতক্ষীরা সিআইডি অফিসের এক কর্মকর্তা জানান, প্রাথমিক তদন্তে নিহত পরিবারের ছোট ভাই রায়হানুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। হত্যার ঘটনাটি বিস্তারিত উদঘাটনে রায়হানুলকে আরো জিঙ্গাসাবাদ প্রয়োজন। এব্যাপারে তদন্ত কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম বিচারকের কাছে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে রায়হানুলকে আদালতে প্রেরণ করেছেন।

উল্লেখ্য, কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামে বৃহস্পতিবার ভোরে একই পরিবারের চারজনকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। নিহতরা হলেন- খলসি গ্রামের শাহাজান আলীর ছেলে মাছের ঘের ব্যবসায়ী শাহিনুর রহমান (৪০), তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩৫), ছেলে সিয়াম হোসেন মাহি (১০) ও মেয়ে তাসনিম (৮)। তবে, শাহিনুরের ৬ মাস বয়সী শিশু সন্তান আফরিন মারিয়াকে দূর্বৃত্তরা হত্যা না করে মায়ের লাশের পাশে ফেলে রেখে যায়। পরে পুলিশ যেয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে। ময়নাতদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চারজনের লাশ দাফন করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রিমান্ড

২০ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ