Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মেসি-রোনালদে দ্বৈরথের অপেক্ষা বাড়ছে!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৫ এএম

লিওনেল মেসি বনাম ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো! ১ অক্টোবর চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র হওয়ার পর সবচেয়ে বড় শিরোনাম ছিল এটিই। হবে না-ই বা কেন! বার্সেলোনা বনাম জুভেন্টাস এমনিতেই শিরোনামে আসার মতো ম্যাচ, কিন্তু এবার সেটি যে বাড়তি আকর্ষণ নিয়ে আসার কথা ছিল! গত ১৪-১৫ বছর বিশ্ব ফুটবল শাসন করা দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে আবার এক করে দেওয়ার কথা ছিল এই ম্যাচ। কিন্তু এখন ওই দ্বৈরথ দেখতে পাওয়া নিয়েই জেগেছে শঙ্কা।
ক’দিন আগেই করোনা পজিটিভ হয়েছেন রোনালদো। পর্তুগাল জাতীয় দলের সঙ্গে থাকা রোনালদো স্বাস্থ্যবিধি মেনে এরই মধ্যে সঙ্গনিরোধ অবস্থায় (আইসোলেশন) চলে গেছেন। কিন্তু করোনা থেকে সুস্থ হতে হতে ক্লাব জুভেন্টাসের হয়ে কতগুলো ম্যাচে খেলার সুযোগ হারাবেন রোনালদো? চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনার বিপক্ষে ম্যাচটা খেলতে পারবেন তো?
দুদিন আগে উয়েফা নেশনস লিগে সুইডেনের মুখোমুখি হয়েছে পর্তুগাল। কেভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় সেই খেলতে পারেননি রোনালদো। এমনকি জুভেন্টাস তারকা করোনা পজিটিভ আসায় ঐদিন সকালেই পর্তুগাল দলের বাকি সব খেলোয়াড়ের করোনা পরীক্ষা হয়েছে, সেখানে আর কারও পজিটিভ আসেনি বলেও জানিয়েছে পর্তুগিজ ফেডারেশন।
পর্তুগালের হয়ে তো আপাতত আর ম্যাচ নেই, এই ম্যাচ পরই রোনালদোর ফেরার কথা ছিল ক্লাব জুভেন্টাসে। কিন্তু করোনার কারণে তার আপাতত মাঠে ফেরা হচ্ছে না। তুরিনে ফিরলেও জুভেন্টাসের জার্সিতে আবার কবে মাঠে ফিরতে পারবেন ৩৫ বছর বয়সী পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড? সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়াচ্ছে, আগামী ২৮ অক্টোবর নিজেদের মাঠে বার্সেলোনার বিপক্ষে ম্যাচটাতে রোনালদো খেলতে পারবেন কিনা!
করোনার সাধারণ নিয়ম মাথায় রাখলে, গতকাল থেকে তুরিনে ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকার কথা রোনালদোর। কারও কারও ক্ষেত্রে করোনা নেগেটিভ আসে ৭ থেকে ১০ দিন আইসোলেশনে থাকার পরই। তবে সেটি সাধারণত দেখা যায় ভাইরাস শরীরে বাসা বাঁধার পর যদি পরীক্ষা করা হয়। রোনালদোর ক্ষেত্রে তা হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ পর্তুগাল জাতীয় দলের হয়ে খেলা থাকায় গত ৮ দিনে নাকি ৭ বার করোনা পরীক্ষা হয়েছে তার। সে ক্ষেত্রে তার করোনা ধরা পড়ার অর্থ হলো, ভাইরাসের শরীর থেকে চলে যাওয়ার প্রক্রিয়ায় তিনি শুরুর দিকে আছেন, শেষের দিকে নয়।
এ কারণেই শঙ্কা বেশি। বার্সেলোনার সঙ্গে জুভেন্টাসের ম্যাচের যে আর ১৪ দিন বাকি! রোনালদো করোনা পজিটিভ হওয়ার সময় থেকে ধরলে বার্সার মুখোমুখি হওয়ার আগে সেরে উঠতে তিনি সময় পাবেন ১৫ দিন। এর মধ্যে করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ তো হতেই হবে, শারীরিকভাবেও ম্যাচ খেলার মতো ফিট হলেই না বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলতে পারবেন রোনালদো! শঙ্কাটা আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে উয়েফার করোনা বিষয়ক স্বাস্থ্যবিধি।
ইতালিয়ান ফুটবলবিষয়ক ওয়েবসাইট ফুটবল ইতালিয়া জানাচ্ছে, উয়েফার নীতি অনুযায়ী চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বা ইউরোপা লিগের ম্যাচে খেলতে হলে একজন খেলোয়াড়কে ম্যাচের ৭ দিন আগে করোনা নেগেটিভ প্রমাণিত হতে হবে। সে ক্ষেত্রে রোনালদোকে করোনা নেগেটিভ প্রমাণিত হতে হবে ২১ অক্টোবরের মধ্যে। ১৩ অক্টোবর করোনা পজিটিভ হওয়া রোনালদোর শরীরে ৮ দিনের মধ্যেই ভাইরাসের উপস্থিতি যে আর থাকবে না, এমনটা হওয়ার সম্ভাবনা কার্যত নেই বললেই চলে।
১৪ দিন আইসোলেশনে থাকার পর নেগেটিভ হলেও ম্যাচ ফিটনেস পেতে পেতে রোনালদো মোট পাঁচটি ম্যাচ মিস করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক বিরতিতে যাওয়ার আগে রোমার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করা জুভেন্টাস এই শনিবার খেলবে ক্রোতোনের মাঠে। এরপর ২০ অক্টোবর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তাদের ম্যাচ দিনামো কিয়েভের মাঠে। ২৫ অক্টোবর লিগে নিজেদের মাঠে জুভেন্টাস খেলবে হেল্লাস ভেরোনার বিপক্ষে। তারপর ২৮ অক্টোবর বার্সার বিপক্ষে ম্যাচ। ১ নভেম্বর লিগে স্পেৎসিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিও মিস করতে পারেন রোনালদো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মেসি-রোনালদো
আরও পড়ুন