Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মাদরাসাছাত্রী এবার গণধর্ষণের শিকার

সারাদেশে গ্রেফতার ৫

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৪ এএম

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ছোট ভাইয়ের প্রেমিকাকে ছিনিয়ে নিয়ে ধর্ষণ করেছে বড় ভাই। গাজীপুরের শ্রীপুরে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার। জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টায় একজন আটক। এ বিষয়ে আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন-
আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে বিধবার পর এবার মাদরাসাছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। ভালোবাসার টানে মাদরাসাছাত্রী ঘর থেকে বের হয় প্রেমিকের সাথে। পথিমধ্যে ছিনিয়ে নিয়ে প্রেমিকের বড় ভাইসহ একবন্ধু মিলে কিশোরীকে গণধর্ষণ করে।
গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় মামলা দায়ের করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো আড়াইহাজার উপজেলার ব্রাহ্মন্দী এলাকায় মোতালিবের ছেলে নজরুল ইসলাম (২৫), তার বড় ভাই বাদল (৩৭), একই এলাকার মধ্যপাড়ার আবুল হোসেনের ছেলে মুছা (২৪)।
মামলা সূত্রে জানা যায়, নজরুল নিজেকে ‘সাগর’ নামে পরিচয় দিয়ে কিশোরীর সাথে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত ১২ অক্টোবর কিশোরী মাদরাসা হোস্টেল থেকে বাসায় আসে। পরে সন্ধ্যায় তার মা মাদরাসায় পাঠিয়ে দেয়। তার আধা ঘণ্টা পর কিশোরীর মা জানতে পারে মেয়ে মাদরাসায় যায়নি। ওইদিন নজরুল কিশোরীকে ফুসলিয়ে দেখা করে। দেখার পর কিশোরী চলে আসতে চাইলে আসতে দেয়নি। নজরুল ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে নজরুলের বড় ভাই বাদল ও মুছা কিশোরীকে নজরুলের সাথে দেখে। নজরুলকে শাসিয়ে কিশোরীকে বাড়িতে পৌঁছে দিবে বলে তাকে তাড়িয়ে দেয়। পরে রাতে উপজেলার ব্রাহ্মন্দী রবিন্দ্র বাবুর পুকুর পাড়ের একটি জঙ্গলে নিয়ে পালাক্রমে বাদল ও মুছা ধর্ষণ করে।
শ্রীপুর (গাজীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কম খরচে মাদরাসায় ভর্তি করার কথা বলে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ফুসলিয়ে গোপন কক্ষে দুই মাস আটক করে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের অভিযোগে শিক্ষক আসাদুজ্জামানকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। সে খুলনা জেলার কসবা উপজেলার উত্তর বেতকাশি গ্রামের মোবারক আলীর ছেলে। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় গাজীপুরের দক্ষিণ সালনা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় গতকাল সকালে ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
র‌্যাব-১ গাজীপুর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের ইনচার্জ লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, গত ২ আগস্ট ভিকটিমকে গাজীপুর মহানগরের দক্ষিণ সালনা এলাকা থেকে শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের ধলাদিয়া এলাকায় নিয়ে আসে। ওই শিক্ষক ভিকটিমকে ধলাদিয়া মাদরাসায় ভর্তি না করে ওই এলাকার একটি গোপন কক্ষে আটক রেখে ভিকটিম ও তার বাবার জীবননাশের হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে। পরবর্তীতে ভিকটিমের বাবা বিভিন্ন সময় ওই মাদরাসার শিক্ষকের মোবাইল ফোনে ফোন করে তার মেয়ের খোঁজখবর জানতে চাইলে শিক্ষক জানায়, তার মেয়ে ভাল আছে এবং লেখাপড়া নিয়ে অনেক ব্যস্ত আছে। প্রায় তিন মাস চলে যাওয়ার পর মেয়ে বাড়িতে না আসায় বাবার সন্দেহ হলে মেয়েকে দেখার জন্য ধলাদিয়া মহিলা মাদরাসায় গিয়ে মেয়ের খোঁজ নিয়ে জানতে পারে ওই মাদরাসায় তার মেয়েকে ভর্তি করানো হয়নি।
সরিষাবাড়ী (জামালপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আব্দুল আজিজ দুলাল (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রামবাসী আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। গত বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের হিরন্যবাড়ির নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানায় মামলাও হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

২৪ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ