Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নভেম্বরে বাংলাদেশ-নেপাল প্রীতি ম্যাচ!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ৭:৩৭ পিএম

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন শেষ হয়েছে ১৪ দিন আগে। নিজের চতুর্থ মেয়াদে সময় নষ্ট না করে এরই মধ্যে কাজে নেমে পড়েছেন বাফুফের চারবারের সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। নির্বাচনের পর দেশের ফুটবল উন্নয়নের কাজকে বেগবান করতে ইতোমধ্যে ১৯টি স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান মনোনীত করেছেন তিনি। এখন পালা মাঠের কাজ শুরু করার।

এবার কাজী সালাউদ্দিনের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রধান দফাই ছিল ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ জাতীয় দলকে একটি সম্মানজনক অবস্থানে নিয়ে যাওয়া। ইশতেহার ঘোষণার সময় বাফুফে বস বলেছিলেন, ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশকে ১৫০তম অবস্থানের আশেপাশে তুলে আনার সর্বাতœক চেষ্টা করবেন তিনি। র‌্যাঙ্কিং বাড়াতে হলে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে ভালো করার পাশাপাশি বেশি বেশি ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলে ভালো ফল করতে হবে জাতীয় দলকে। টানা চারবারের মতো বাফুফে সভাপতি পদে জিতে সালাউদ্দিন নিজের নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী কাজ শুরু করে দিয়েছেন। এ ধারাবাহিকতায় আগামী মাসে দু’টি ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলার ব্যবস্থা করছেন তিনি। ১১ থেকে ১৯ নভেম্বরের মধ্যে ফিফা উইন্ডোতে এ ম্যাচ দু’টি অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রতিপক্ষ হচ্ছে নেপাল জাতীয় দল।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে নেপালের অবস্থান ১৭০তম স্থানে। বাংলাদেশের ১৮৭। নেপালীদের বিপক্ষে ম্যাচ দু’টিতে ভালো করে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি করা উদ্দেশ্য থাকলেও এটাও সত্যি করোনাভাইরাসের কারণে গত মধ্য মার্চ থেকে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ফুটবলের বাইরে থাকা বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের খেলায় ফিরিয়ে আনাও একটা লক্ষ্য বাফুফের নতুন নির্বাচিত কমিটির।

অবশ্য বেশ আগেই নেপালকে বাংলাদেশে এসে দু’টি প্রীতি ম্যাচ খেলতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (আনফা) বাফুফের সেই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে নভেম্বরের ফিফা উইন্ডোতে বাংলাদেশে এসে খেলতে রাজি হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ শনিবার বলেন, ‘আগেই নেপালকে প্রীতি ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দিয়েছিলাম আমরা। সেই প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে ওরা নভেম্বরেই বাংলাদেশে খেলতে আসবে বলে জানিয়েছে।’

নেপালের ফুটবল ওয়েবসাইট ‘গোল নেপাল ডটকম’ও শুক্রবারে তাদের এক প্রতিবেদনে আনফার বরাত দিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে নেপালের দু’টি প্রীতি ম্যাচ খেলার তথ্যটি নিশ্চিত করেছে। গোল নেপাল ডটকম জানায়, আগামী ২৬ অক্টোবর নেপালের বৃহত্তম উৎসব দশাইন উৎসবের (বিজয়া দশমী) পরেই নেপাল ফুটবল দল অনুশীলন শুরু করবে। এর আগে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বের জন্য আনফা গত আগস্টে অনুশীলন শুরু করতে চেয়েছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রভাব না কমায় নেপাল সরকার অনুশীলনের অনুমতি দেয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ