Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ উপনির্বাচন বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন ও হরতালের ডাক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০৩ এএম | আপডেট : ১২:০৬ এএম, ১৮ অক্টোবর, ২০২০

করোনা ভাইরাসের মধ্যেই ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ শূন্য আসনের উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দুই আসনেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। ঢাকা-৫ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকামার্কার প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ভোট পেয়েছেন ৪৫ হাজার ৬৪২ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপির সালাহউদ্দিন আহমেদ (ধানের শীষ) পেয়েছেন ২ হাজার ৯২৬ ভোট। নির্বাচনে ভোটের হার শতকরা ১০ দশমিক ৪৩ শতাংশ।
অন্যদিকে নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচনে ১ লাখ ৫ হাজার ৪৬৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী (নৌকা) আনোয়ার হোসেন হেলাল। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›িদ্ব বিএনপির প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৪ হাজার ৫১৭ ভোট। এদিকে নওগাঁয় ভোট বাতিল হরতাল ডেকেছে বিএনপি
গতকাল সকাল নয়টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেয়া হয়। ঢাকা-৫ আসনে ভোটার উপস্থিতি ও ভোট প্রয়োগের হার একেবারেই কম ছিল। ভোট কক্ষের ভেতর পোলিং অফিসাররা গল্পগুজব করে অলস সময় পার করছেন। নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যরা কেন্দ্রের সামনে বসে আড্ডা দিয়ে সময় কাটিয়েছেন। বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে বিএনপির পোলিং এজেন্টকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্বাচনকে ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচন উল্লেখ করে বিএনপির প্রার্থীরা ভোট বর্জন করে পুনরায় নির্বাচন ও কমিশনের পদত্যাগের দাবি জানিয়েছেন। অন্যদিকে নির্বাচন শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘উপনির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। কোন অনিয়মের অভিযোগ পাইনি।’
ঢাকা-৫ সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ এবং ফলাফল বর্জন করে পুননির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ। পাশাপাশি অনিয়মের প্রতিবাদে আজ রোববার (১৮ অক্টোবর) দুপুর ২টায় নির্বাচনী এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দেন তিনি। গতকাল সন্ধ্যায় ধানের শীষের প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ তার প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন।
সকাল ৯টায় এ আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সকাল পৌনে ১০টায় যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল ও কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সালাহউদ্দিন আহমেদ সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, ৯৫ ভাগ কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। এ নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠুভাবে আজ পর্যন্ত কোনো নির্বাচন করতে পারেনি।
তিনি বলেন, আমি এ নির্বাচনের প্রথম দিন থেকে আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীদের দ্বারা বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হয়েছি। এমনকি আমি মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়েছি, সেখানেও আমাকে বাধা দেয়া হয়েছে। আমার তো জন্মগত অধিকার এ এলাকার কোনো মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়া এবং তাদের কাছে ভোট চাওয়া, দোয়া চাওয়া। কিন্তু সেটাও আমাকে করতে দেয়া হয়নি। আমরা যখনই গণসংযোগে গিয়েছি, জনগণ স্বতঃস্ফ‚র্তভাবে সাড়া দিয়েছে এবং তখনই আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আমাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে। বিএনপির এ প্রার্থী বলেন, আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আমাদের নেতাকর্মীদের বিভিন্নভাবে নির্যাতন করেছে। আপনারা দেখেছেন দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে আমাদের দুই এজেন্ট বোনকে অপদস্ত করে বের করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া আর কে মিশন চৌধুরী স্কুলে আমাদের আরেক নারী এজেন্টের ওপর হামলা করে তাকে বের করে দেয়া হয়েছে। এমনকি তার গায়ে হাতও দেয়া হয়েছে। প্রিসাইডিং অফিসারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বিএনপি প্রার্থী বলেন, প্রায় সব কেন্দ্রেই আমাদের এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। যেসব কেন্দ্রে এজেন্ট ঢুকেছে তাদেরও বের করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা কোনো পদক্ষেপ নেননি। আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে বারবার অবহিত করলেও তিনি কোনো পদক্ষেপ নেননি। আপনাদের মাধ্যমে আমরা এ অনিয়মে জর্জরিত অবৈধ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছি এবং পুননির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি।
নওগাঁ ৬ আসনের উপনির্বাচনে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল। তিনি বলেন, এই বিজয় প্রধানমন্ত্রীর ভাল কাজের ফল। এই ভোটে প্রমাণ হল বর্তমান সরকার জনগণের সরকার। পাশাপাশি ভোটের মধ্য দিয়ে জনগণ প্রমাণ করে দিল শেখ হাসিনার সরকার নিরেপেক্ষ সরকার। আগামীতে এই দায়িত্ব আমি সঠিক ভাবে পালন করব। এবং দেশ ও জাতীর হয়ে কাজ করে যাবো।
অন্যদিকে, বিএনপি মনোনিত প্রার্থী রেজাউল ইসলাম বিকেলেই ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, ভোটে কোনো রকম নিয়ম মানা হচ্ছে না। বিএনপির এজেন্টদের কেন্দ্রে থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে। রাণীনগর ও আত্রাই নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬ আসনের ১৬টি ইউনিয়নে ১০৪টি ভোটকেন্দ্রের ৭২১টি ভোটকক্ষে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬ হাজার ৭২৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৫৩ হাজার ৭৫৮ জন এবং নারী এক লাখ ৫২ হাজার ৯৬৭ জন। ৩৬.৪ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে।



 

Show all comments
  • Md Alauddin ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৩ এএম says : 0
    তারা মনে হয় সরকারের সাথে অঘোষিত জোট করেছে বৈধতা দেওয়ার!
    Total Reply(0) Reply
  • Manik Islam ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৩ এএম says : 0
    বিএনপির লজ্জা সরম কম না হইলে ঘুরে ফিরে সেই নির্বাচনে যেত না
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rafiq Ullah ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৪ এএম says : 0
    ঈদের পর অান্দোলনের ডাক দিবে। তবে কোন ঈদে জানিনা
    Total Reply(0) Reply
  • Md Bayjid Khan ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৪ এএম says : 0
    ঈদের পরে কঠোর আন্দোলন এ নামবে বলে ১৩ বছরে ২৬ টা ঈদ গেলো কিন্তু মাঠে আর দেখা গেলো না,,নুরু ২ বছরেই মাঠ কাপালো,,সব শুধু ক্ষমতার ধান্দা।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Omar Faruk ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৪ এএম says : 0
    এই সরকারের আমলে সুষ্ট নির্বাচন হবেনা জেনেও ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্চার মতো নাচতে নাচতে নির্বাচনে যায়, বিএনপির নিতি-নির্ধাক ৯৫% সরকারের এজেন্ট,
    Total Reply(0) Reply
  • Hossain Iqbal ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৫ এএম says : 0
    আওয়ামী লীগ এর যেকোন ধরনের নির্বাচনে অন্য যেকোন দলের লোক'রা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করা টাই বোকামি কেন যে অংশ গ্রহণ করে বুজিনা
    Total Reply(0) Reply
  • মোহাম্মদ জাকির হোসেন ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ২:২২ এএম says : 0
    এটাই হওয়ার কথা ছিল। যা হওয়ার কথা না তাই হয়েছে। আমরাও মজা পেয়েছি। মজায় মজায় বেলা শেষ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপনির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ