Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

মুমিন-মোত্তাকী বান্দাহদের পারস্পরিক সম্পর্ক

এ. কে. এম. ফজলুর রহমান মুন্শী | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

মহান রাব্বুল আলামীন মুমিন-মোত্তাকী বান্দাহদের মাঝে এমন এক অবিচ্ছেদ্য ভ্রাতৃত্ব বন্ধন সৃষ্টি করেছেন, যার বাঁধন কোনো কালেই ছিন্ন হবার নয়। এ প্রসঙ্গে আল কোরআনে ইরশাদ হয়েছে : (ক) তোমরা তোমাদের ওপর আল্লাহর নেয়ামতকে স্মরণ কর, যখন তোমরা পরস্পর শত্রু ছিলে। তারপর আল্লাহ তোমাদের অন্তরে ভালোবাসার সঞ্চার করেছেন। অতঃপর তোমরা তাঁর অনুগ্রহে ভাই ভাই হয়ে গেছে। (সূরা আলে ইমরান : আয়াত ১০৩)।

(খ) ইরশাদ হয়েছে : তিনিই তোমাকে শক্তিশালী করেছেন তাঁর সাহায্য ও মুমিনদের দ্বারা। আর তিনি তাদের অন্তর সমূহে প্রীতি স্থাপন করেছেন। যদি তুমি জমিনে যা আছে তার সব কিছু ব্যয় করতে তবুও তাদের অন্তর সমূহে প্রীতি স্থাপন করতে পারতে না। কিন্তু আল্লাহ তাদের মধ্যে প্রীতি স্থাপন করেছেন, নিশ্চয় তিনি পরাক্রমশালী প্রজ্ঞাময়। (সূরা আনফাল : আয়াত ৬২-৬৩)।

(গ) ইরশাদ হয়েছে : নিশ্চয় মুমিনগণ পরস্পর ভাই ভাই। কাজেই তোমরা তোমাদের ভাইদের মধ্যে আপোষ মিমাংসা করে দাও। আর তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, আশা করা যায় তোমরা অনুগ্রহ প্রাপ্ত হবে। (সূরা হুযুরাত : আয়াত ১০)।

উপরোল্লিখিত আয়াত সমূহের অর্থ ও মর্মের প্রতি গভীর দৃষ্টিতে তাকালে সহজেই অনুধাবন করা যায় যে, মুমিন মোত্তাকী বান্দাহদের মধ্যে যে অবিচ্ছেদ্য ভ্রাতৃত্ব বন্ধন স্থাপিত হয়, তা মূলত : আল্লাহ রাব্বুল ইজ্জতের দান ও অনুগ্রহ। এই দানের ফলেই মুমিনগণ স্থায়ীভাবে একে অপরকে ভালোবাসে, একে অন্যকে সকল ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। এরই ফলশ্রুতিতে তারা নিজেদের ওপর অপর মুমিন ভ্রাতার প্রয়োজনকে অগ্রাধিকার প্রদান করে। এই বিশেষত্বটি আল্লাহ রাব্বুল ইজ্জত এভাবে তুলে ধরেছেন। আল কোরআনে ইরশাদ হয়েছে : এবং তারা নিজেদের ওপর অন্যান্যদের প্রয়োজনকে অগ্রাধিকার দেয়। যদিও তারা অভাব অনটনের মধ্যে রয়েছে। (সূরা হাশর : আয়াত ৯১)।

মুমিন-মোত্তাকী বান্দাহদের এই প্রীতি বন্ধনের বিশ্লেষণ হাদীস শরীফে বিস্তারিতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। যথা : (ক) হযরত আবু মূসা আশয়ারী (রা.) হতে বর্ণিত, পিয়ারা নবী মোহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন : একজন মুমিনের সঙ্গে আরেকজন মুমিনের সম্পর্ক সুদৃঢ় প্রাসাদের মতো; যার একটি অংশ অপর অংশের সাথে মজবুত ভাবে সংযুক্ত। একথা বলে উপমা স্বরূপ তিনি তাঁর এক হাতের আঙ্গুল অপর হাতের আঙ্গুলের মধ্যে প্রবেশ করিয়ে দেখালেন। (সহীহ বুখারী শরীফ; ৮/৬০৬২)।

(খ) হযরত মুআজ ইবনে জাবাল (রা.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেছি যে, আল্লাহতায়ালা বলেছেন : যারা আমার জন্যে পরস্পরকে ভালোবাসে, আমার জন্যে একত্রে উপবেশন করে, আমার জন্যে পরস্পর সাক্ষাত করতে যায় এবং আমার জন্যে পরস্পরে অর্থ ব্যয় করে তাদের প্রতি আমার ভালোবাসা অনিবার্য। (মোয়াত্তা ইমাম মালেক)।

(গ) হযরত আবু হুরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত, মোহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, আল্লাহতায়ালা কিয়ামতের দিন বলবেন, যারা আমার শ্রেষ্ঠত্বের জন্য পরস্পরকে ভালোবাসত তারা আজ কোথায়? আজকে আমি তাদেরকে নিজের ছায়াতলে আশ্রয় দান করব। আজকে আমার ছায়া ছাড়া আর কারো ছায়া নেই। (সহীহ মুসলিম শরীফ ৪/২৫৬৬)।



 

Show all comments
  • মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন তালুকদার ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১২:১৮ এএম says : 0
    কোরআন এবং হাদিসের এই সকল বানী আমাদের ঈমানকে আরও মজবুত করবে ইনশাআল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • মরিয়ম বিবি ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। মানুষের মধ্যে যাদের আল্লাহ তাআলা ঈমানের মতো অমূল্য সম্পদ দান করেছেন তাদের মর্যাদা অনেক ঊর্ধ্বে। তারা আল্লাহর প্রিয়ভাজন।
    Total Reply(0) Reply
  • হৃদয়ের ভালোবাসা ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    একজন মুমিন আল্লাহ তাআলার কাছে অত্যন্ত দামি। মুমিন নিজেও বোঝে না তার কত দাম।
    Total Reply(0) Reply
  • গাজী মোহাম্মদ শাহপরান ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    এক মুমিন আরেক মুমিনের আয়না : আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘এক মুমিন আরেক মুমিনের আয়না ও ভাই।’ (আবু দাউদ, হাদিস : ৪৯১৮, বুখারি, আদাবুল মুফরাদ, পৃষ্ঠা-৯৩, আল মুগনি-১/৪৭৯, বুলুগুল মুরাম, পৃষ্ঠা-৩৪৪, তিরমিজি : ৪/৩২৫)
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল রাহী ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:২০ এএম says : 0
    যেহেতু এক মুমিন আরেক মুমিনের ভাই, সেহেতু কাজ তাদের জন্য হারাম। উপহাস করা : আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন, ‘মুমিনরা কেউ যেন অন্য কাউকে উপহাস না করে।’
    Total Reply(0) Reply
  • দর্শন ই ইসলাম ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
    ঈমানদারদের সঙ্গে অন্য ঈমানদারের সম্পর্ক ঠিক তেমন যেমন দেহের সঙ্গে মাথার সম্পর্ক। সে ঈমানদারদের প্রতিটি দুঃখ-কষ্ট তেমনি অনুভব করে যেমন মাথা দেহের প্রতিটি অংশের ব্যথা অনুভব করে (মুসনাদ আহমদ : ৫/৩৪০)
    Total Reply(0) Reply
  • গাজী ওসমান ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
    মহানবী (সা.) আরো বলেন, মুসলমান আরেক মুসলমানের ভাই। সে তার প্রতি জুলুম করে না, তাকে অপমানিত করে না এবং তাকে তুচ্ছজ্ঞান করে না (মুয়াত্তা : ২/৯০৭ মুসনাদ আহমদ : ২/২৭৭)
    Total Reply(0) Reply
  • বায়েজীদুর রহমান রাসেল ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
    মহান আল্লাহ আমাদের আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম

২৩ অক্টোবর, ২০২০
২৩ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন