Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ঈশ্বরগঞ্জে বাল্য বিয়ের অভিযোগে ভুয়া কাজীর ১বছরের কারাদণ্ড ও ২০হাজার টাকা জরিমানা

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২০, ৫:০৫ পিএম

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে নাবালিকার বিয়ে রেজিস্ট্রি করার অভিযোগে ভুয়া কাজীকে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালত এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ।ড ও ২০হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। শনিবার রাতে উপজেলার বড়হিত ইউনিয়নের বুনিয়াদপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের নাবালিকা কন্যা সুমি আক্তার (১৪) বিয়ের রেজিস্ট্রি করার সময় ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার ভুমি সাঈদা পারভীনের উপস্থিতি টের পেয়ে বর কনে ও পরিবারের লোকজন বাড়ি থেকে পালিয়ে গেলেও কাজী শহিদুল ইসলামকে কাগজপত্রসহ আটক করে পুলিশ।
রাতেই ভ্রাম্যমান আদালত ওই কাজীকে ১বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ২০হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার টাকা অনাদায়ে আরো ১৫দিনের দন্ডে দন্ডিত করেছন বলে আদালত সূত্রে জানা যায়।
দ-প্রাপ্ত শহিদুল ইসলাম ইতো মধ্যে বাল্য বিয়ে রেজিস্ট্রি করায় ১৫দিন কারাভোগ করেছেন। সে নিজেকে উচাখিলা ইউনিয়নের কাজী পরিচয় দিয়ে বিবাহ রেজিস্ট্রির কাজ করে আসছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উচাখিলা ইউনিয়নের বৈধ কাজী মাহবুব।
এ বিষয়ে কাজী মাহবুবের সাথে কথা হলে তিনি জানান, শহিদুল তার চাচাতো ভাই। এধরণের কর্মকান্ডের জন্য তিনি শহিদুলের বিরুদ্ধে ইতো মধ্যে থানায় অভিযোগ করেছেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার ভুমি সাঈদা পারভীন জানান, বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালালে বর ও কনে পালিয়ে গেলেও ভূয়া কাজী শহিদুল ইসলামকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদ- ও ২০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাল্যবিবাহ

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
৫ ডিসেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন