Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

‘নির্বাচন কমিশনারের ফাঁসি হবে দিবালোকে’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল বলেছেন, দেশে নাকি আইন হয়েছে ধর্ষণ করলে মৃত্যুদÐ। কিন্তু যারা দিনের ভোট রাতে করে অবৈধভাবে একটি দলকে ক্ষমতায় বসিয়েছে, যার কারণে দেশে আজ খুন রাহাজানি, আমাদের মা-বোনরা ধর্ষিত হচ্ছে তাদের বিচার কি হবে না? তাদেরও ফাঁসি হতে হবে। রাত ১২টা ১ মিনিটে নয়, দুপুর ১২টা ১ মিনিটে প্রকাশ্য দিবালোকে আজ হোক কাল হোক এই নির্বাচন কমিশনারের ফাঁসি হবে এই বাংলাদেশের মাটিতে।
গতকাল রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে এবং নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।
সোহেল বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে কখনও ভোটারদের কাছে যেতে দেখিনি। তিনি শুধু এসপি ও প্রশাসনের কার্যালয় দৌড়াদৌড়ি করেছেন। কীভাবে ভোট ডাকাতি করা যায় সেই ব্যবস্থা করেছেন। বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ যখন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছেন তখন আওয়ামী লীগের প্রার্থী তার সব মেধা-বুদ্ধি দিয়ে প্রশাসনের সহযোগিতায় এবং তার গুন্ডা বাহিনীর সহযোগিতায় ভোটের ফল তার দিকে নিয়ে গেছেন।
তিনি বলেন, নির্বাচনের দিন আমি নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করার জন্য সেই এলাকায় গিয়েছিলাম। গিয়ে দেখি সেই এলাকা গুন্ডাপান্ডা দিয়ে ভর্তি। ওই এলাকার শুধু ভোটাররাই নন, সাধারণ জনগণ সেদিন বাসা থেকে বের হতে পারেননি। বাসা থেকে বের হলেই ভোটাররা দেখতে পান তাদের বাসার সামনে ওই এলাকার সবচেয়ে বড় গুন্ডা এবং ঢাকার আশপাশের সব গুন্ডা দাঁড়িয়ে আছে। যে কারণে ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে যেতে পারেননি। বিএনপির এই নেতা বলেন, দেশের ভোটের অবস্থা নষ্টের জন্য শুধু সরকার দায়ী নয়। এজন্য দায়ী এই সরকারের পা-চাঁটা নির্বাচন কমিশনও। ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচন বাতিল করে আবারও নির্বাচন দেয়ার দাবিও জানান তিনি।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, ঢাকা-৫ আসনে বিএনপির প্রার্থী আলহাজ সালাহউদ্দিন আহমেদ ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহিন প্রমুখ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফাঁসি

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন