Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ধর্ষণ নারী নির্যাতন বন্ধে ইসলামী আইনের বিকল্প নেই

পীর সাহেব মধুপুর মাওলানা আব্দুল হামিদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০২০, ৬:২৪ পিএম

খতমে নবুওয়াত সংরক্ষণ কমিটির আমির মাওলানা আব্দুল হামিদ পীর সাহেব মধুপুর বলেন, ধর্ষণ নারী নির্যাতন বন্ধে সরকার চরমভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। ধর্ষণ যিনা-ব্যভিচার প্রতিরোধে কোরআনের আইনের বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ধর্ষণের মৃত্যুদ- আইন যাতে অপপ্রয়োগ না হয় সেদিকে জন্য সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। পীর সাহেব বলেন, যিনা-ব্যভিচার প্রতিরোধেও ইসলামী শরীয়া অনুযায়ী আইন প্রণয়ন করতে হবে। দেশে ইসলামী হুকুমত না থাকলে জান মাল, ঈমান আমল কিছুই রক্ষা করা যাবে না। আজ সোমবার রাজধানী ঢাকার পল্টনস্থ একটি হোটেলে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন একাংশের মহানগর আমীর মাওলানা মোহাম্মদ হোস্ইান আকন্দ এর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আলহাজ মোহাম্মদ আজম খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত দলের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর হযরত মাওলানা সুফি কাজী আব্দুল মজিদ, মহাসচিব মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ আশরাফ (রহ.) ইন্তেকালে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে মধুপুর পীর সাহেব মাওলানা আব্দুল হামিদ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান আমীরে শরীয়ত আল্লামা জাফরুল্লাহ খান, দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আলহাজ আজম খান, খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আহমাদ আলী কাসেমী, বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান মুফতি ফখরুল ইসলাম, মাওলানা রুহুল আমীন, মাওলানা আবুু আম্মার আবদুল্লাহ, মুফতী এনায়েতুল্লাহ ইবনে আহমাদুল্লাহ আশরাফ, দলের নায়েবে আমির মাওলানা আবু জাফর কাসেমী, মাওলানা আবুল কাসেম কাসেমী, আলহাজ মো. আব্দুল মালেক চৌধুরী, আলহাজ রফিকুল ইসলাম বাবুল, শ্রমিক নেতা আমির আলী হাওলাদার, মাওলানা হুসাইন আজমী, হাফেজ ইব্রাহিম বিন আলী, আলী মাসুদ মামুন খান, ফরিদুল ইসলাম আশরাফী, মুফতি মোহাম্মদ হাসান আশরাফী, গোফরান আমিন ও কাজী যোবাইর মাসুদ। মাওলানা জাফরুল্লাহ খান বলেন, পাঠ্যসূচিতে ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক না হওয়ায় দেশ নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও খুন-খারাবি বাড়ছে। তিনি ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে কুরআনের আইন প্রণয়নসহ যিনা ব্যভিচার বন্ধেও কার্যকরী উদ্যোগ নেয়ার জোর দাবি জানান। এতে হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) রেখে যাওয়া কাজগুলোকে এগিয়ে নেয়ার জন্য মুসলিম জনতার প্রতি উদাত্ত আহবান জানানো হয়। তিনি বলেন, হযরত হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) এর তওবা ও জিকিরের রাজনীতি খেলাফত আন্দোলনই হচ্ছে, ইলমে দ্বীন, তাসাউফ, দাওয়াতে তাবলীগ, ও জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহর মাধ্যমে দেশের মানুষকে আল্লাহ মুখি করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা। পরে দলের মহাসচিব মাওলানা মুহিববুল্লাহ আশরাফসহ মৃত অন্যান্য নেতা কর্মীদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ