Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভারতকে ধ্বংসের পথে টেনে নিয়ে চলেছে বিজেপি

দলীয় বৈঠকে সোনিয়া গান্ধী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

বহুদিন পরে মুখ খুললেন সোনিয়া গান্ধী। এবং মুখ খুলেই সমালোচনায় ভরিয়ে দিলেন মোদি সরকারকে। এআইসিসি-র সাধারণ সম্পাদক ও বিভিন্ন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঙ্গে বৈঠক ছিল সোনিয়ার। সেখানেই তিনি বলেন, ‘দেশের গণতন্ত্র সব থেকে কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছে’।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করলেন সোনিয়া। মোদি সরকারকে তোপ দেগে কংগ্রেস সভানেত্রী মন্তব্য করলেন, তিনটি কালা আইনের মাধ্যমে মোদি সরকার ভারতের কৃষিনির্ভর অর্থনীতির মূলে আঘাত করছে। গত রোববার দলীয় নেতাদের কাছে সোনিয়া বলেন, ‘ভারত ফসল উৎপাদনে যে সাফল্য অর্জন করেছে তা ষড়যন্ত্র করে কমিয়ে দেয়ার চেষ্টা চলছে। বর্তমানে ছোট চাষি, ভাগচাষি, শ্রমিক ও ছোট ব্যবসায়ীদের জীবন ও জীবিকা অস্তিত্ব সঙ্কটে। এ ষড়যন্ত্রকে পরাস্ত করতে জোটবদ্ধ হওয়া আমাদের একান্ত কর্তব্য’। দলিতদের বিরুদ্ধে অত্যাচার বাড়ছে, এদিকে দোষীদের শাস্তি না দিয়ে বিজেপি অপরাধীদের আশ্রয় দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন কংগ্রেস সভানেত্রী।

মোদি সরকারের করোনা মোকাবিলার পন্থা নিয়েও সমালোচনা করেন সোনিয়া। তার দাবি, অযোগ্যতা ও অব্যবস্থাপনার ফলে দেশকে বিপদের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় সরকার ভারতের অর্থনীতিকে ক্রমশ ধ্বংসের দিকে নিয়ে চলেছে বলেও অভিযোগ কংগ্রেস সভানেত্রীর।

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকা নিয়েও তীব্র সমালোচনা করেন সোনিয়া। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন ২১ দিনে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হবে। তা হয়নি। অর্থনীতি তলানিতে ঠেকেছে। করোনা পরিস্থিতির জেরে ১৪ কোটি মানুষ কর্মহীন’।

দেশজুড়ে দলিত-আদিবাসীদের ওপর আক্রমণ নিয়েও মোদি সরকারের সমালোচনা করেন সোনিয়া। হাথরাসের ঘটনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, মোদি সরকারের আমলে দলিতদের ওপর আক্রমণ মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। কখনও ধর্মীয় সা¤প্রদায়িকতা কখনও জাতপাতের বিভাজন এই চলছে দেশে। বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে জঙ্গলের রাজত্ব কায়েম হয়েছে।

কৃষি আইনের জন্য লাখ-লাখ কৃষকের জীবন বিপন্ন হওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ সোনিয়ার। এ ব্যাপারে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজ্যে-রাজ্যে জোরদার আন্দোলন গড়ে তোলার ডাক দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী। সূত্র : জি নিউজ, দ্য ওয়াল।



 

Show all comments
  • Ali Hossain ২০ অক্টোবর, ২০২০, ২:০৪ এএম says : 0
    ভারত অনেক সুন্দর এবং বিশাল বড় দেশ। বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর ১২ লক্ষ (করোনা কাল ছাড়া) ভ্রমণ পিপাসু রা ভারত ভ্রমন করে থাকেন। ১৯৭১ সালে পূর্ব পাকিস্তানের বাঙ্গালী মুসলমানদের ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ার ভারতের কাছে একটা সুযোগ চলে আসে। আমরা স্বাধীনতাকামী রা যখন খুব কাছে থেকে দেখতে পেলাম ভারতীয় বাহিনীর হাত ধরে পূর্ব পাকিস্তান ১৯৭১ এর ১৬ই ডিসেম্বার বাংলাদেশ হয়ে যাওয়ায় আমরা অভিভূত হয়ে যাই। মোদী অমিত শাহ্ সেই বন্ধু রাষ্ট্রের নাগরিকদের গুলি করে মারার কথা বলে। কি ভেবেছেন BJP বাংলাদেশ একা, না মোদির ধারণা ভুল প্রমাণিত হবে ইনশাআল্লাহ। আমরা মোদীকে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিব। ভারতের ২০ কোটি মুসলমানের সাথে বাংলাদেশের ১৮ কোটি মুসলমান আছে।
    Total Reply(0) Reply
  • বাতি ঘর ২০ অক্টোবর, ২০২০, ২:০৪ এএম says : 0
    আমি আপনার সাতে েএকমত।
    Total Reply(0) Reply
  • হোসাইন এনায়েত ২০ অক্টোবর, ২০২০, ২:০৫ এএম says : 0
    ভারতকে একটা ফালতু রাষ্ট্র হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিতে বিজেপির কোনো বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • বিপুলেন্দু বিশ্বাস ২০ অক্টোবর, ২০২০, ২:০৫ এএম says : 0
    একটা উগ্রবাদী সংগঠন তো এটাই করবে।
    Total Reply(0) Reply
  • habib ২০ অক্টোবর, ২০২০, ৯:৪১ এএম says : 0
    When a terror person like PM Narendro Modi who was involved that killing many Muslim in Gujarat and continuously killing Muslim by RSS BJP supporter. Indian future within hand of N Modi is consequence and danger.....
    Total Reply(0) Reply
  • salman ২০ অক্টোবর, ২০২০, ৬:৫১ এএম says : 0
    Alhamdulillah, ............. Dhongsho hok, ata e ALLAH"R kasay Kamona kori
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

২৮ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ