Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

শর্ত সাপেক্ষে মোহামেডান-মেরিনারের শস্তি প্রত্যাহার!

ঝুলে থাকলো ঊষার ভাগ্য

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ অক্টোবর, ২০২০, ৮:০৯ পিএম

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে) দুই বছর আগে ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ও মেরিনার ইয়াংস ক্লাবের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যে শাস্তি আরোপ করেছিল সেই শাস্তি শর্ত সাপেক্ষে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে ঝুলে থাকলো পুরান ঢাকার ক্লাব ঊষা ক্রীড়া চক্রের ভাগ্য! তাদের প্রিমিয়ার লিগে খেলার আবেদনটি গৃহীত হয়নি। মঙ্গলবার মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে বাহফে’র নির্বাহী কমিটির সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভা শেষে বাহফে’র সভাপতি ও বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাশিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত বলেন, ‘মোহামেডান ও মেরিনারের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যে শাস্তি আরোপ করা হয়েছিল তা শর্ত সাপেক্ষে প্রত্যাহার করা হয়েছে। অন্যদিকে ঊষার বিষয়টি গঠনতন্ত্রের মধ্যে থেকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

২০১৮ সালের ৭ জুন সর্বশেষ প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডান ও মেরিনার ইয়াংসের মধ্যকার সুপার ফাইভের ম্যাচে টার্ফেই গন্ডগোলে জড়িয়ে পড়েন দু’ক্লাবের কর্মকর্তারা। ফলে ৪৪ মিনিট খেলা চলার পর তা বন্ধ হয়ে যায়। তখন ম্যাচের ফলাফল ছিল ১-১ গোলে সমতা। ওই ঘটনার ৫ মাস পর বাহফে দুই ক্লাবের চার কর্মকর্তাকে শাস্তি দিয়েছিল। মোহামেডানের ম্যানেজার আরিফুল হক প্রিন্স ও মেরিনারের সাধারণ সম্পাদক হাসান উল্লাহ খান রানাকে ৫ বছর বহিস্কারের পাশাপাশি জরিমানা করা হয়েছিল ১ লাখ টাকা করে।

আর মোহামেডান হকি দলের সহকারি ম্যানেজার আসাদুজ্জামান চন্দন ও মেরিনারের কর্মকর্তা নজরুল ইসলামকে ৩ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছিল বাহফে। এর প্রতিবাদে লিগ শিরোপা জিতেও মোহামেডান তাদের চ্যাম্পিয়ন ট্রফি গ্রহণ করেনি। সেই শস্তির জের ধরেই মোহামেডান ও মেরিনার বেঁকে বসেছিল। তাদের দাবি ছিল কর্মকর্তাদের শাস্তি প্রত্যাহার না করলে লিগ কমিটিতে প্রতিনিধি প্রেরণ করবে না ক্লাব দু’টি। পাশাপাশি লিগেও খেলবে না তারা।

কিন্তু বাহফে চায় সব দলের অংশগ্রহণে এবারে প্রিমিয়ার লিগ টার্ফে গড়াক। তাই লিগ শুরুর স্বার্থে তারা ওই শাস্তি প্রত্যাহার করছে। তবে তা প্রস্তাহার হবে মোহামেডান ও মেরিনার লিগে খেলবে এমন নিশ্চয়তা দিলে।

লিগ নিয়ে বাহফে সভাপতি বলেন, ‘আমরা হকিকে সামনে এগিয়ে নিতে চাই। আমাদের প্রিমিয়ার লিগ মাঠে নামাতে হবে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে লিগ শুরুর টার্গেট করে আমরা এগুচ্ছি।’

অন্যদিকে মঙ্গলবার বাহফের নির্বাহী কমিটি সভায় আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়। আর তা হচ্ছে ঊষা ক্রীড়া চক্রের প্রিমিয়ার লিগে খেলার আবেদনের বিষয়টি। মোহামেডান-মেরিনারের চার কর্মকর্তার শাস্তি শর্ত সাপেক্ষে প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হলেও ঊষার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্তম হয়নি। এ প্রসঙ্গে ফেডারেশনের সভাপতি ও বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত বলেন, ‘ঊষার বিষয়টি বাহফে’র গঠনতন্ত্রের মধ্যে থেকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। উষার ব্যাপারে অনেক কথা হয়েছে। আমরা চাই সবাই যেন খেলতে আসে। তবে গঠনতন্ত্রের সঙ্গে কম্প্রোমাইজও করতে চাই না।’

তিনি যোগ করেন, ‘ঊষাকে প্রিমিয়ার লিগে রাখতে হলে বাইলজে পরিবর্তন আনতে হবে। আবার যদি এখতিয়ারের মধ্যে থেকে থাকে সেটা করতে পারি এই স্বার্থে যে, সবাই লিগে খেলবে। এই লিগ অনেক দিন হয় না। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এ ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। উষার আবেদন ও সব কিছু বিবেচনা করে দেখেছি। কিছু বিষয় আছে, যে কারণে আজই (মঙ্গলবার) সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। তারা বলছে, সময় দেয়া হয়নি। বাহফেতে পূর্বে যারা ছিলেন, বিষয়টি নিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলতে হবে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন