Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

শঙ্খের পাড়ে ভাঙা ফেরি আটকা বেড়িবাঁধের কাজ

আনোয়ার (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

 অবহেলায় নষ্ট হয়ে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ সেতু এলাকার শঙ্খ নদীর পাড়ে পড়ে আছে কোটি টাকার ফেরি। মরিচা পড়ে ক্ষয় হয়ে সেগুলো রাতের আঁধারে চুরি হচ্ছে মূল্যবান যন্ত্রাংশ। চুরি থেকে রেহাই পাচ্ছে না নাটবল্টুও। 

সংরক্ষণের অভাবে একটি ফেরি হারিয়ে গেছে ইতিমধ্যে। নষ্ট ফেরির কারণে আটকে আছে বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজও। দখলে চলে গেছে আশপাশের জায়গাও। আশির দশকে সরকার আনোয়ারা-বাঁশখালীর মানুষের যাতায়াতের কষ্ট লাঘব করতে তৈলারদ্বীপ-চানপুর নৌঘাটে ফেরি চালু করে। ২০০৬ সালের ২৯ আগস্ট সেতু চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বন্ধ হয়ে যায় শঙ্খ নদে চলাচলকারী কোটি টাকা মূল্যে দুটি ফেরি। দুটি ফেরি তৈলারদ্বীপ ঘাটেই পড়ে আছে প্রায় ১৪ বছর ধরে।
জানা যায়, দুটি ফেরির মধ্যে একটি ফেরির দেখা নেই। অপরটি পন্টুনের একাংশ ডুবে আছে পানিতে। ফেরির বাকি অংশে স্থানীয় লোকজন খড়ের গাদা ও গোবর শুকাতে দিয়েছে। সেতু উদ্বোধণের ১৪ বছর পার হলেও এ ফেরিগুলো অপসারণ বা রক্ষায় কোন উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।
স্থানীয় বাসিন্দা আবু তাহের জানান, সেতু চালু হওয়ার পর থেকে ফেরিগুলো নদীর পাড়ে পড়ে আছে। লবণাক্ত পানি আর মাটির নিচে পড়ে ফেরিগুলো দিনে দিনে ক্ষয় হয়ে গেছে। এ ফেরিগুলো এখন আর কোন কাজে আসবে না। রাতের আধারে ফেরির বিভিন্ন মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি করে নিয়ে গেছে অনেকেই। ফেরিতে ছোট ছেলে মেয়ে খেলাধুলা বা নদীতে মাছ ধরতে গেছে হাত পা কেটে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ফেরির কারণে নদীর পাড়ে বেড়িবাঁধ নিমার্ণ হলেও এখানে এসে থেমে গেছে উন্নয়ন কাজ।
স্থানীয় বারখাইন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এটি সরকারের মূল্যবান সম্পদ। অযতœ আর অবহেলায় নষ্ট হয়ে গেছে এ সম্পদ। যে বাকি অংশ এখনো রয়েছে গেছে এগুলো রক্ষাণাবেক্ষণ করা প্রয়োজন কর্তৃপক্ষের। এ বিষয়ে জানতে চাইলে দোহাজী সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ বলেন, মেকানিক্যাল ক্রটির কারণে এ ফেরি দুটি সড়ানো হয়নি। শীঘ্রই সড়ানো হবে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফেরি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ