Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

এক চীন মেনে চলার পরামর্শ ভারতকে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

তাইওয়ানের সঙ্গে ‘বিচক্ষণতার সঙ্গে ও যথাযথভাবে’ সম্পর্ক রক্ষা করে চলার জন্য ভারতকে পরামর্শ দিয়ে মঙ্গলবার চীন বলেছে যে বেইজিং নয়াদিল্লী ও তাইপে’র মধ্যে যেকোন সরকারি বিনিময় ‘দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান’ করে। একটি বাণিজ্য চুক্তির ব্যাপারে তাইওয়ানের সঙ্গে ভারত আলোচনা করবে বলে খবর প্রকাশের পর চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে উপরোক্ত কড়া বিবৃতি দেয়া হয়। ২০১৮ সালে ভারত ও তাইওয়ান একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সই করে। তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠানগুলো ইতোমধ্যে ভারতে ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ করছে। তবে তাইওয়ানের সঙ্গে ভারতের ক‚টনৈতিক সম্পর্ক নেই। নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে চীনা পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান ভারতের প্রতি ‘এক চীন নীতি’ মেনে চলার আহŸান জানান। এক প্রশ্নের জবাবে মুখপাত্র বলেন, বিশ্বে চীন একটি এবং তাইওয়ান দ্বীপটি চীনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তিনি বলেন, চীনের সঙ্গে ক‚টনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে এমন যেকোন দেশের যেকোনভাবে তাইওয়ান দ্বীপের সঙ্গে সরকারি ধরনের কোন বিনিময় বা চুক্তি স্বাক্ষরের দৃঢ় বিরোধিতা করে বেইজিং। ভারতীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার বøুমবার্গে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয় যে, তাইওয়ানের সঙ্গে বাণিজ্য আলোচনা শুরু করতে ভারত সরকারের মধ্যে মনোভাব জোরদার হচ্ছে। চীনা মুখপাত্র বলেন, ভারতসহ আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়ের মধ্যে এক-চীন নীতির ব্যাপারে অভিন্ন ঐক্যমত রয়েছে। এটাই কোন দেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের রাজনৈতিক ভিত্তি। ঝাও বলেন, ভারতকে আন্তরিকভাবে এক-চীন নীতি মেনে চলতে হবে এবং তাইওয়ান প্রশ্নটি বিচক্ষণতার সঙ্গে ও যথাযথভাবে সামলাতে হবে। ১০ অক্টোবর তাওয়ানকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি’র সমর্থকরা দিল্লীতে ‘হ্যাপি ন্যাশনাল ডে’ লেখা পোস্টার লাগালে এর প্রতিবাদ জানিয়ে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়কে পত্র দেয় সেখানকার চীনা দ‚তাবাস। অভিযোগ পাওয়ার পর অবশ্য পোস্টারগুলো তুলে ফেলা হয়। তার আগে চীনা দ‚তাবাস থেকে ২৫০ জন সাংবাদিকের কাছে পাঠানো পত্রে তাইওয়ানকে দেশ বা জাতি হিসেবে উল্লেখ না করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়। মালাবার নৌ মহড়ায় অস্ট্রেলিয়াকে ভারতের আমন্ত্রণ জানানো নিয়েও প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে চীন। ঝাও বলেন, আমরা অগ্রগতির উপর নজর রাখছি। আমরা সবসময় মনে করি যে বিভিন্ন দেশের মধ্যে সামরিক সহযোগিতাকে আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য সহায়ক হতে হবে। চীন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ভারতের ধর্মশালায় তিব্বতের কথিত ‘প্রবাসী সরকারের’ প্রধান লবসাং সাঙ্গের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের তিব্বত বিষয়ক বিশেষ সমন্বয়কারীর বৈঠকেরও প্রতিবাদ জানিয়েছে বলে মুখপাত্র উল্লেখ করেন। দি হিন্দু, এসএএম।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

১ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ