Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি

প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : গভীর শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জাতি আজ স্বাধীনতার স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদতবার্ষিকীতে জাতীয় শোক দিবস পালন করছে। এ উপলক্ষে দলীয়ভাবে আওয়ামী লীগ ও সরকারিভাবে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ এবং তার অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনসহ অন্যান্য রাজনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠন বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবারের নিহত সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মাসব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করে।
১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস। ১৯৭৫ সালের শোকাবহ এই কালোদিবসে সূর্য ওঠার আগে খুব ভোরে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে।
১৫ আগস্টকে সামনে রেখে এ মাসের প্রথম দিন থেকেই আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। এবারও সরকারিভাবে পালিত হচ্ছে দিবসটির বিভিন্ন কর্মসূচি। দিবসটিকে ইতোমধ্যেই সরকারি ছুটি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।
সরকারিভাবে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি ভবনসমূহে অর্ধনমিত জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে দিবসের কমসূচি। এ ছাড়া বিদেশে বাংলাদেশ মিশনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ বেতার এবং বাংলাদেশ টেলিভিশন বিশেষ অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার এবং সংবাদপত্রসমূহ বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়সহ অন্যান্য মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থা জাতীয় কর্মসূচির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নিজ নিজ কর্মসূচি পালন করবে।
জেলা ও উপজেলা প্রশাসন যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালনের জন্য আলোচনা সভা এবং মিলাদ মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠন বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর প্রাঙ্গণে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সাংবাদিক সমাজ জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা জানাবে। এদিন সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। সশস্ত্র বাহিনীর গার্ড অব অনার প্রদান শেষে অনুষ্ঠিত হবে মোনাজাত ও কোরআন তেলাওয়াত।
এ ছাড়া ১৫ আগস্টে শাহাদাত বরণকারী জাতির জনকের পরিবারের সদস্য ও অন্যান্য শহীদের বনানী কবরস্থানে সকাল সাড়ে ৭টায় পুস্পস্তবক অর্পণ শেষে ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাত হবে।
এদিন সকাল ১০টায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফাতেহা পাঠ, প্রধানমন্ত্রীর পুষ্পস্তবক অর্পণ ও সশস্ত্র বাহিনীর গার্ড অব অনার প্রদানসহ মোনাজাত হবে।
আওয়ামী লীগের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু ভবন এবং কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সংগঠনের সকল স্তরের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন।
সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সকাল সাড়ে ৭টায় বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন, মাজার জিয়ারত, ফাতেহা পাঠ, মোনাজাত ও মিলাদ মাহফিল করা হবে। একই দিনে টুঙ্গিপাড়ায় সকাল ১০টায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন, ফাতেহা পাঠ, মোনাজাত, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল হবে।
এ কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের একটি প্রতিনিধিদল উপস্থিত থাকবেন। এদিন বাদ জোহর দেশের সকল মসজিদে মিলাদ মাহফিল হবে। সুবিধামতো সময়ে মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ অন্যান্য উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা এবং দুপুরে অসচ্ছল দুস্থ মানুষদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ করা হবে। মহিলা আওয়ামী লীগ বাদ আছর বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে।
আওয়ামী লীগের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ১৬ আগস্ট বিকাল ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভা। এতে সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।
মহানগর আওয়ামী লীগ, আওয়ামী যুবলীগ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, মহিলা যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন শোক দিবস উপলক্ষে অনুরূপ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
এ ছাড়াও ১৫ আগস্ট বাদ আসর দেশের সকল ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলায় মিলাদ মাহফিল এবং মন্দির, প্যাগোডা ও গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা হবে।
এ ছাড়া জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এসব দল ও সংগঠনের মধ্যে রয়েছেÑসিপিবি, জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, জাতীয় শ্রমিক লীগ, বাংলা একাডেমি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কৃষক লীগ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, নজরুল ইন্সটিটিউট, রেলওয়ে শ্রমিক লীগ, মুক্তিযোদ্ধা লীগ, বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদ, শেখ রাসেল শিশু সংসদ, ঢাকা সড়ক পরিবহন সমিতি, সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ, সোনালী ব্যাংক এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ।
জাসদ, জেপি, গণফোরাম, জাতীয় প্রেসক্লাবসহ অন্যান্য সাংস্কৃতিক, সামাজিক এবং রাজনৈতিক সংগঠন এ উপলক্ষে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের আহ্বান : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে দেশবাসীকে সঙ্গে নিয়ে পালন করার জন্য আওয়ামী লীগ, সহযোগী, ভ্রাতৃপ্রতিম, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং সংস্থাগুলোর সর্বস্তরের নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী : গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৯তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের রাষ্ট্রীয় কর্মসূচিতে অংশ নিতে আজ টুঙ্গিপাড়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কর্মসূচি সফল করতে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে টুঙ্গিপাড়ার পৌঁছে সকাল ১০টায় জাতির জনকের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। পরে ফাতেহা পাঠ, কবর জিয়ারত ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেবেন। এ সময় তিন বাহিনীর একটি চৌকস দল জাতির পিতাকে রাষ্ট্রীয় সালাম এবং প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করবে। বেলা ১১টায় বঙ্গবন্ধু সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স মসজিদ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে মিলাদ মাহফিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।