Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

নোয়াখালীতে ৯ জনকে অচেতন করে লুট

নোয়াখালী ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

সদর উপজেলায় বিনোদপুর ইউনিয়নে দু’টি পরিবারের লোকজনকে রাতের খাবারের সাথে নেশাজাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে অচেতন করে ঘরের সর্বস্ব লুটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। অসুস্থ্য ৯ জন নারী পুরুষকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার বিকাল এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কারোই জ্ঞান ফিরেনি। অসুস্থরা হলেন, পশু চিকিৎসক আব্দুর রহমান, তাজুল ইসলাম, শফিকুর রহমান, জান্নাতুল মাওয়া বিথী, মিনু বেগম, নিপুর, রোকেয়া বেগম, নিলু আক্তার, মুনিয়া। এদের মধ্যে তাজুল ইসলাম, রোকেয়া বেগম ও নিলুফা আক্তারের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
জানা গেছে, সদর উপজেলার বিনোদপুর গ্রামের ডাক্তার বাড়ির আব্দুর রহমান ও একই গ্রামের ছেরাজল হক মাওলানা বাড়ির সফিকুর রহমানের ঘরের সদস্যরা গত মঙ্গলবার রাতে খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে পড়েন। স্থানীয়দের সহযোগিতায় ডাক্তার বাড়ির লোকজনকে মঙ্গলবার রাতে ও মাওলানা বাড়ির লোকজনকে বুধবার সকালে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা।
অসুস্থদের স্বজন আরাফাত ও শাহজাহান বলেন, সন্ধ্যার পর কোন এক সময়ে বসত ঘরের বাহিরে রান্না ঘরে ভাত তরকারির সাথে দুর্বৃত্তরা নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে রেখে যায়। ওই খাবার খেয়ে রাতে লোকজন ঘুমিয়ে পড়ে। তাদেরকে উদ্ধার করে বুধবার সকালে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুর্বৃত্তরা দুইটি ঘরের স্বর্ণালঙ্কার, টাকা পয়সা ও মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।সুধারাম মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কাউছার আহম্মেদ বলেন, দুর্বৃত্তরা খাবারের সাথে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে দুইটি পরিবারের স্বর্ণালঙ্কার টাকা পয়সা ও মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অচেতন-করে-লুট
আরও পড়ুন