Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ফের লেবাননের ক্ষমতায় সাদ হারিরি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০২০, ৯:৩৪ পিএম

চতুর্থ দফা প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য মনোনীত হলে লেবাননের তিন বারের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি। পদত্যাগের এক বছর পর আবার লেবাননের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন তিনি। গত বছরের অক্টোবরে তিনি বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করেন। পার্লামেন্টের সদস্যদের বেশিরভাগ ভোট পেয়ে তিনি বিজয়ী হন। সংসদে তিনি ৬৫ জন এমপির ভোট পেয়েছেন। বৃহস্পতিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট এ মনোনয়নের কথা জানিয়েছেন। সুন্নি মুসলিম রাজনীতিক হারিরি দ্রæত্বই অরাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের নিয়ে মন্ত্রিসভা গঠন এবং ফ্রান্স প্রণীত সংস্কার প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের প্রতিশ্রæতি দিয়েছেন; যাতে দেশকে গভীর সঙ্কট থেকে বের করে আনা যায়।
তিনি বলেছেন, তার প্রধান কাজ হবে ফ্রান্সের রোডম্যাপের আলোকে অর্থনৈতিক ও প্রশাসনিক সংস্কার। তিনি বলেন, সময় চলে যাচ্ছে, দেশকে রক্ষা করার এটা শেষ সুযোগ। কাজেই দ্রæত তিনি সরকার গঠন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চান।
বুধবার প্রেসিডেন্ট আউন বলেছিলেন যে, চলতি বছরের মধ্যে ঘোষিত তৃতীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রথম কাজ হবে দেশের সংস্কারের মাধ্যমে স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠা ও দুর্নীতি দমন। এর আগে এ বছরই বৈরুতে বিস্ফোরণের পর হাসান দিয়াব পদত্যাগ করেন এবং গত আগস্টে একজন অখ্যাত ক‚টনীতিক আদিবকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে চরম অসহযোগিতার মাঝে প্রায় এক মাস পর পদত্যাগ করেন।
১৯৭৫-১৯৯০ সালের গৃহযুদ্ধের পর লেবানন এখন সবচেয়ে সঙ্কটময় সময় পাড়ি দিচ্ছে। দেশটিতে ব্যাংকিং, মুদ্রা সঙ্কট, রাষ্ট্রীয় ঋণ এবং দারিদ্র্য বেড়ে যাওয়ার মতো কঠিন চ্যালেঞ্জ রয়েছে।
হারিরির প্রধানমন্ত্রী হওয়া বিক্ষোভকারীদের জন্য পরাজয় হতে পারে। পরিবর্তনের দাবিতে বিক্ষোভে নামা মানুষেরা হারিরিকে রাজনৈতিক শ্রেণির প্রতীক হিসেবে বিবেচনা এবং সঙ্কটের জন্য দায়ী করে আসছে। নতুন সরকার গঠনে সমঝোতার জন্য কয়েক সপ্তাহের রাজনৈতিক উত্থান-পতনের পর বৃহস্পতিবার হারিরিকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়। হারিরিকে সমর্থন জানিয়েছে ফিউচার লেজিসলেটর, শিয়া আমাল পার্টি, দ্রæজ রাজনীতিক ওয়ালিদ জুমলাতের দল।
প্রভাবশালী শিয়া গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য তারা কাউকে মনোনয়ন দিচ্ছে না। তবে তারা এ প্রক্রিয়াকে সহযোগিতা করবে। সূত্র : আল-জাজিরা ও আরব নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন