Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

টানা তিন দিনের অচলাবস্থা শেষে খোরাকিভাতার দাবি মেনে নেয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার হয়েছে। সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. শাহ আলম ধর্মঘট প্রত্যাহারের এ ঘোষণা দেন। রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নৌযান শ্রমিকরা কাজে যোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।
১১ দফা দাবিতে সোমবার মধ্যরাতে ধর্মঘটে যায় বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। শ্রমিক ধর্মঘটে সারা দেশের নৌপথে পণ্য পরিবহনে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়। দেশের বিভিন্ন ঘাটে লাইটারেজ জাহাজে ২১ লাখ মেট্রিক টন পণ্য আটকা পড়ে।

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘটের বিষয়ে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, নৌ শ্রমিকরা যে দাবি করেছেন, তাদের ম‚ল দাবি হচ্ছে খোরাকি ভাতা। এটা অবশ্যই তাদের ন্যায্য দাবি, এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। গত এক বছরে তারা দুবার এই ধরনের ধর্মঘটে গেছেন। আমরা আলোচনা করে এটার একটা সমাধান করেছি। চিটাগাং চেম্বারসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকেও দ্রæত ধর্মঘট প্রত্যাহারের উদ্যোগ নেয়ার দাবি উঠে।

নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতির ফলে গতকাল তৃতীয় দিনের মতো বড় জাহাজ থেকে পণ্য খালাস ও নৌপথে পণ্য পরিবহনে অচলাবস্থা বজায় ছিল। পণ্য খালাস বন্ধ থাকায় বহির্নোঙ্গরে মাদার ভেসেলের সংখ্যা বাড়ছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পণ্যবাহী ৪২টি বড় জাহাজ অলস ভাসছিল। এসব জাহাজে প্রায় ১০ লাখ মেট্রিক টনের মতো পণ্য রয়েছে। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে সিমেন্ট ক্লিংকার, কয়লা, অপরিশোধিত চিনি, সার, ভুট্টা, গম, ভোগ্যপণ্য ছাড়াও আছে সিরামিক, ইস্পাত ও তৈরি পোশাক শিল্পের কাঁচামাল। বহির্নোঙ্গরে এসব জাহাজ থেকে পণ্য খালাস হয় লাইটার জাহাজের মাধ্যমে। পরে এসব জাহাজে মালামাল পৌঁছে দেয়া দেশের বিভিন্ন এলাকায়। টানা তিনদিন ধর্মঘটের ফলে পণ্য খালাস ও পরিবহনে মারাত্মক অচলাবস্থা নেমে আসে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্মঘট

২৪ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন