Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সামষ্টিক শাস্তি শঙ্কায় ফ্রান্সের মুসলিমরা

কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ করবেন না ম্যাখোঁ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০১ এএম

১৮ বছর বয়সী এক চেচেন বংশোদ্ভ‚ত কিশোরের হাতে স্কুল শিক্ষকের শিরñেদের ঘটনার পর ফ্রান্সে সংখ্যালঘু মুসলিমদের সঙ্গে ফরাসীদের ভঙ্গুর সম্পর্ক পরীক্ষার মুখোমুখি হয়েছে। ঘৃণ্য এই হত্যাকান্ড ঘিরে দেশটিতে সামষ্টিক শাস্তির শঙ্কা করছেন মুসলিমরা। গত শুক্রবার রাজধানী প্যারিস থেকে ২৪ কিলোমিটার দ‚রের কনফ্ল্যান্স-সেইন্টে-হনোরোইন এলাকায় আক্রান্ত হন ৪৭ বছর বয়সী স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি। স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল হত্যাকান্ডের পর শোকাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে পুরো ফ্রান্স। বুধবার ফ্রান্সের সর্বোচ্চ মরণোত্তর সম্মাননা লিজিওন ডি অনারে ভ‚ষিত হয়েছেন তিনি। দেশটির প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁ এক অনুষ্ঠানে স্যামুয়েলকে সর্বোচ্চ এই সম্মাননা প্রদান করেন। তিনি বলেন, আমরা কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ করবো না। ম্যাখোঁ বলেন, তাকে (স্যামুয়েল প্যাটি) হত্যা করা হয়েছে কারণ ইসলামপন্থী উগ্রবাদীরা আমাদের ভবিষ্যত কেড়ে নিতে চায়। আমরা তা হতে দেবো না। অনুষ্ঠানে হাজার হাজার ফরাসী অংশ নেন। হত্যাকান্ডের দিন গত শুক্রবার প্যারিস-সহ আশপাশের বেশ কিছু অঞ্চলে বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে দেশটির আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী। কয়েকটি মসজিদেও হামলা চালিয়েছেনক্ষুব্ধ ফরাসীরা। সহিংসতার আশঙ্কায় দেশটির সরকার বেজায়ার্স ও বর্ডিক্স অঞ্চলে একাধিক মসজিদ বন্ধ করে পুলিশি পাহারা বসিয়েছে। দেশটিতে বসবাসরত ইউরোপের বৃহত্তম সংখ্যালঘু মুসলিম জনগোষ্ঠীর মধ্যে গভীর উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। যদিও গত ২ অক্টোবর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বিশ্বজুড়ে ইসলাম গভীর সঙ্কটে রয়েছে বলে মন্তব্য করার পর থেকেই দেশটিতে কোনঠাঁসা অবস্থায় আছেন মুসলিমরা। তার মাঝে এই হত্যাকাÐ ঘিরে সেখানে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। মুসলিমদের আশঙ্কা, ইসলামকে সন্ত্রাসবাদ হিসেবে অভিহিত করার নীতি এগিয়ে নেয়ার জন্য স্যামুয়েল প্যাটির র্মমান্তিক মৃত্যুকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারে ফ্রান্সের সরকার। ফ্রান্সের মুসলিম মানবাধিকার কর্মী ইয়াসির লোয়াতি বলেন, মুসলিমরা টার্গেটে পরিণত হচ্ছেন। প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ তার প্রচারণাকে জোরাল করতে ইসলামোফোবিয়াকে ব্যবহার করছেন বলে মনে করেন লোয়াতি। সোমবার ফ্রান্সের সরকার সন্দেহভাজন চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে অভিযান জোরদার করার ঘোষণা দেয়। বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দুই শতাধিক মুসলিমকে ফ্রান্স থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এএফপি, আল-জাজিরা।

 



 

Show all comments
  • আব্দুল্লাহ চৌধুরী ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    আল্লাহ আপনি ম্যাখোঁ কে হেদায়াত দাও অথবা তাকে ধ্বংস করে দাও
    Total Reply(0) Reply
  • Rezaul Islam ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১:০১ এএম says : 0
    আমরা জানি, পরাজিত ও দুর্বলেরা ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করে। আর শাক্তিশালী ও জ্ঞানীরা শিষ্ঠাচার প্রদর্শন করে। ইউরোপের দিন শেষ। নাস্তিকতা তাদেরকে পুঙ্গু করে দিয়েছে। এখন শুধু তাদের শেষ নিঃশ্বাসের আনুষ্ঠানিকতাটাই বাকী আছে। সেটুকুও খুব শীঘ্রই আমরা দেখেতে পাবো বলে আশা করছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Mozammal Huqe Mukul ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১:০২ এএম says : 0
    খলীফা আব্দুল হামিদের কথা ভুলে গেছে তারা।
    Total Reply(0) Reply
  • নাসিম ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ১:০৪ এএম says : 0
    ফ্রান্স অত্যন্ত বাড়াবাড়ি করছে। ধ্বংসের সময় ঘনিয়ে এসেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুলআজিজ ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ৮:৩৮ এএম says : 0
    পৃথিবী জুড়ে আজ মুসলমানদের উপর দিয়ে চলছে অনেক অত্যাচার। নেদারল্যান্ডসে মসজিদে হামলায় অমুসলিমদের কোনশব্দ শুনা যায়নি।আর আজ একজনকে হত্যা করার সাথে সাথে মুসলমান জঙ্গি হয়ে গেল। হায়রে মানবতা!!!!!!
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুলআজিজ ২৩ অক্টোবর, ২০২০, ৮:৩৮ এএম says : 0
    পৃথিবী জুড়ে আজ মুসলমানদের উপর দিয়ে চলছে অনেক অত্যাচার। নেদারল্যান্ডসে মসজিদে হামলায় অমুসলিমদের কোনশব্দ শুনা যায়নি।আর আজ একজনকে হত্যা করার সাথে সাথে মুসলমান জঙ্গি হয়ে গেল। হায়রে মানবতা!!!!!!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুসলিম

১৯ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ