Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

রামগড়ে ধর্ষণে অন্তসত্তা এক প্রতিবন্ধী; ধর্ষণের অভিযোগে আদালতে পিতার মামলা

রামগড় (খাগড়াছড়ি) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২০, ৮:০৯ পিএম

খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার থলিবাড়ি এলাকায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক মেয়ে (২২)’কে ধর্ষণে অন্তসত্তার ঘটনায় ধর্ষিতার পিতা মোহাম্মদ ইলিয়াছ বাদী হয়ে বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, খাগড়াছড়ি’তে সামছুল হক টুকু সহ তিন প্রতিবেশিকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলাটির বাদী মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, গত ৯ সেপ্টেম্বর মেয়েসহ স্বশরীরে আদালতে হাজির হয়ে মামলা দায়ের করলে, মামলাটি তদন্ত সাপেক্ষে রামগড় থানাকে একটি প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয় আদালত।

মেয়ের মা বলেন, জন্মগতভাবেই তাঁর মেয়ে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। নিজের ভালোমন্দ বুঝে না। হঠাৎ মেয়ের শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন ও নিয়মিত অসুস্থ থাকায় সন্দেহবশত গুইমারা মেডিকেল সেন্টারে প্রেগন্যান্সী টেস্ট করানো হয়। প্রেগন্যান্সী টেস্ট পরীক্ষায় রিপোর্ট পজেটিভ জানতে পেরে মেয়েকে জিজ্ঞেস করলে সে জানায়, সম্প্রতি সামছুল হক টুকু’র কর্তৃক সে ধর্ষিত হয়েছে। মেয়ে গরু নিয়ে জঙ্গলে গেলে প্রতিবেশী টুকু মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং কাউকে কিছু না বলার জন্য বলে। কাউকে বললে জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বলে মেয়ে নিজের বক্তব্যে উঠে আসে। তবে মেয়েটি ঘটনার দিন-তারিখ সঠিক বলতে না পারলেও ৪-৫ মাস আগে ধর্ষণের স্বীকার হয় বলে প্রতিবেশিকে বলে।

এ বিষয়ে থলিবাড়ি সমাজ কমিটির সভাপতি ফজল হক ভূইয়া জানান, বিষয়টি গত ৮ সেপ্টেম্বর তাকে জানানো হয়েছে। কিন্তু কোন সিদ্ধান্ত না দেয়ার আগে পরেরদিনই আদালতে মামলা দায়ের করেছে মেয়েটির বাবা।

রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জে সামসুজ্জামান এ প্রতিনিধিকে বলেন, বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে মামলাটি তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। ধর্ষিত মেয়েটি বর্তমানে ৩ মাসের অন্ত:সত্তা। মামলায় বিবাধীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগটি সত্য। আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক পরবর্তীতে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন