Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

করোনা মোকাবেলায় জরুরি নির্দেশনা দিলেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ৮:৫০ এএম

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী করোনা মহামারী মোকাবেলায় দৃঢ় সিদ্ধান্ত গ্রহণের পাশাপাশি জনগণ যাতে স্বেচ্ছায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে সেদিকে নজর দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। একইসঙ্গে দেশের সব বিভাগকে ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বোত্তম উপায় অবলম্বনের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার এক থেকে দুই দিনের মধ্যে ব্যক্তিকে শনাক্ত করে চিকিৎসা শুরু করলে ভালো ফল আসে। এখন এই পদক্ষেপ জরুরি।

তিনি দেশের জনগণের পাশাপাশি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকেও স্বাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে মেনে চলার আহ্বান জানান। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, দুঃখজনকভাবে কোনো কোনো কর্মকর্তাকে দেখা যাচ্ছে মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলার ক্ষেত্রে অবহেলা করছেন। তাদের এই অবহেলা সাধারণ মানুষের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি তিনি আল্লাহর কাছে দোয়া করার আহ্বান জানান।

আজ (শনিবার) করোনা মোকাবেলা বিষয়ক জাতীয় টাস্কফোর্সের সদস্যদের সঙ্গে সরাসরি বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন। এই টাস্কফোর্সের নেতৃত্বে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি।

তার নেতৃত্বেই টাস্কফোর্সের সদস্যরা ইরানের সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরও বলেন, দেশে অনেক বড় বড় কাজ হচ্ছে। এ পর্যন্ত কোনো কিছুই ইরানের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করতে পারেনি। যেসব বিষয় অগ্রযাত্রার গতিকে মন্থর করছে তা অপসারণে সোচ্চার হতে হবে।

সর্বোচ্চ নেতা দেশের ভেতরে ঐক্য ও সংহতি অক্ষুণ্ণ রাখার আহ্বান জানিয়ে বলেন, গঠনমূলক সমালোচনা করা যেতেই পারে। তবে সমালোচনা আর অবমাননার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। কাউকে অপমান ও অবমাননা করা নিষেধ। এটা মার্কিনীদের কৌশল। মার্কিন নেতারা নির্বাচনী বিতর্কে গোটা বিশ্বের সামনে নিজেরাই নিজেদেরকে অপমানিত করে যাচ্ছেন।

সূত্র: পার্সটুডে



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন