Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৫ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করলো অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ১০:২১ এএম

চকলেট দেওয়ার লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে বাড়ির পা‌শের একটি বাগানে নিয়ে যায় শিশির। পরে সেখানে তা‌কে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের কথা কাউকে জানালে শিশুটিকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় সে। বর্তমানে শিশির পলাতক।

ঘটনাটি ঘটেছে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায়। ধর্ষণের অভিযোগে শিশুটির পিতা মামলা করেছেন ওই কিশোরের বিরুদ্ধে। শনিবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন তিনি।

আসামি শিশির ফকির উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের বাসুদেব এলাকার ইদ্রিস ফকিরের ছেলে। সে স্থানীয় কিন্ডার গার্টেন স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয় ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ১৭ অক্টোবর দুপুরে চকলেট দেওয়ার লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে বাড়ির পা‌শের একটি বাগানে নিয়ে যায় শিশির। পরে সেখানে তা‌কে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের কথা কাউকে জানালে শিশুটিকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় সে।

ঘটনার পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবার তা‌কে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। ঘটনায় জড়িত শিশির শিশুটির চাচাতো ভাই হওয়ায় স্থানীয়ভাবে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়।

শনিবার বিকেলে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে পুলিশের সহযোগিতায় ভেদরগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে শিশিরের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

ভেদরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম র‌শিদুল বা‌রি জানান, শিশু ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগে মামলা হ‌য়ে‌ছে। রোববার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হবে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তা‌কে খুঁজ‌ছে পুলিশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

৩ আগস্ট, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন