Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

রায়হান হত্যা, আরও ৩দিনের রিমান্ডে পুলিশ কনস্টেবল টিটু

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ৪:০৪ পিএম

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ (৩৪) হত্যা মামলায় পুলিশ কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসকে আরও ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।
৫ দিনের রিমান্ড শেষে আজ রোববার বিকেলে তাকে আদালতে সিলেটের অতিরিক্ত মূখ্য মহানগর হাকিম জিয়াদুর রহমানের আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে টিটু জবানবন্দি দিতে রাজী না হওয়ায় তার আরও ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সিলেটের পরিদর্শক মহিদুল ইসলাম বলেন, তাকে ১৬৪ জবানবন্দি দেওয়ার জন্য বলা হলে সে তা দেয়নি; এজন্য পিবিআই আরো ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর আদালতের বিচারক জিয়াদুর রহমান ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
গত শনিবার (২৪ অক্টোবর) টিটুর ৫ দিনের রিমান্ড শেষ হয়। এরআগে গত ২০ অক্টোবর পুলিশ কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওইদিনই তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এই মামলায় শনিবার আরেক কনস্টেবল হারুনুর রশীদকে গ্রেপ্তার করে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পিবিআই।
টিটু ও হারুন বন্দরবাজার ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন। রায়হান আহমদ মৃত্যুর ঘটনায় টিটু-হারুনসহ আরও ৪ পুলিশ সদস্যকে আগেই সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছিলো।
উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর ভোরে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হন রায়হান আহমদ (৩৪) নামের এক যুবক। পরে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে তিনি মারা যান। রায়হান সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি নগরীর রিকাবিবাজার স্টেডিয়াম মার্কেটে এক চিকিৎসকের চেম্বারে কাজ করতেন।
এই ঘটনায় ১২ অক্টোবর রাতে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হেফাজতে মৃত্যু আইনে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী।



 

Show all comments
  • Abdul Halim ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ৬:১৯ পিএম says : 0
    hanging chai
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রায়হান হত্যা


আরও
আরও পড়ুন