Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে রোলিং মিলে বিস্ফোরণ : ৪ কর্মকর্তা গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ৫:০২ পিএম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় প্রিমিয়ার স্টিল এন্ড রি-রোলিং মিলে লোহা গলানো ভাট্টির বিস্ফোরণের ঘটনায় কারখানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ এনে এক নিহত শ্রমিকের ভাই বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় পুলিশ রোলিং মিলের দুই ব্যবস্থাপকসহ চার কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছে।
শনিবার (২৪ অক্টোবর) বিস্ফোরণে নিহত ফাহিমের ভাই মাহিম বাদি হয়ে অজ্ঞাত কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে মামলাটি দায়ের করেন। পরে পুলিশ প্রিমিয়ার স্টিল এন্ড রি-রোলিং মিলের জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করে।
রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, নিহত শ্রমিক ফাহিমের ভাই মাহিম অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় প্রিমিয়ার স্টিল মিলের জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, দূর্ঘটনার পর আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনার কারণে ঘটনাটি ঘটেছে বলে আমাদের তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেছে। কারখানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন নিহত এক শ্রমিকের ভাই। অজ্ঞাত আসামি করা হলেও এই মামলায় কারখানার জেনারেল ম্যানেজার, প্রোডাকশন ম্যানেজার ও দুই সুপারভাইজারকে গ্রেফতার করে সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত রিমান্ড আবেদনের শুনানি রোববার (২৫ অক্টোবর) ধার্য্য করেছেন।
গত বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটায় রূপগঞ্জ উপজেলার বরপা এলাকায় লোহা প্রস্তুতকারক কারখানা প্রিমিয়ার স্টিল এন্ড রি-রোলিং মিলের (পিএসআরএম) লোহা গলানোর পাত্র ভাট্টির বিস্ফোরণ ঘটে। গলিত লোহা গায়ে পড়ে গুরুতর দগ্ধ হন ছয় শ্রমিক। তাদের মধ্যে একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোর রাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত চার শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।
নিহত শ্রমিকরা হলো, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের আলোদিয়ার বাজার এলাকার শাহজাহান মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমান (৪২), ফাহিম (২৫), লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাংলাবাড়ী এলাকার আব্দুস সোবহানের ছেলে মো. শাকিল (২০) ও কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী এলাকার টিপু শেখের ছেলে আবু সিদ্দিক (৩০)।
এছাড়া দগ্ধ হওয়া দুই শ্রমিক লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাংলাবাড়ী এলাকার বাউরা এলাকার সুন্দর আলীর ছেলে রফিক মিয়া (৪৫) এবং রহমতপুর এলাকার রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মো. রাজু (৪০) রাজধানীর বেসরকারি একটি হাসপাতালে এখনো চিকিৎসাধীন আছে। তাদের মধ্যে রাজুর অবস্থা আশংকাজনক বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার

২ ডিসেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন