Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

শিশুসহ মৃত ১১

ছয় জেলায় সড়ক দুর্ঘটনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

ছয় জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ ১১ জন নিহত হয়েছেন । গত ২৪ ঘণ্টায় নিহতদের মধ্যে ময়মনসিংহে ৩, ফরিদপুর, পঞ্চগড় ও নরসিংদীর শিবপুরে ২ জন করে, জয়পুরহাট ও চট্টগ্রামে ১ জন করে।
ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই নারী ও এক শিশুসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। গতকাল সকালে জেলার নান্দাইল ও গৌরীপুরে দুপুর আড়াইটার দিকে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার ধলা গ্রামের আবুল ইসলামের মেয়ে আফরোজা আক্তার (৯)। সে নান্দাইলের দরিল্লা গ্রামে মামা বাড়ি থেকে পড়াশোনা করতো। অপর দুইজন জেলার গৌরীপুর উপজেলায় দুই সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই নারী নিহত হয়েছেন। তাদের তার নাম ঠিকানা জানাতে পারেননি পুলিশ।
এ বিষয়ে নান্দাইল থানা পুলিশের ওসি মিজানুর রহমান বলেন, ভোরে প্রতিদিনের মতো আফরোজা আক্তার আরবি পড়তে যায় বাড়ির অদূরে একটি মাদরাসায়। পড়া শেষ করে সকাল ৮টার দিকে অন্যদের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিল সে। এ সময় নান্দাইল তাড়াইল সড়কের দরিল্লা নামক স্থানে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইক তাকে ধাক্কা দিলে সে ছিটকে পড়ে সড়কে। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। গৌরীপুর থানা পুলিশের ওসি বোরহান উদ্দিন বলেন, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের রামগোপালপুর ইউনিয়ের গঙ্গাশ্রম নামক স্থানে দুই সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই এক নারী মারা যায়। আহত হয় তিনজন। তাদের উদ্ধার করে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক আরও এক নারীকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফরিদপুর : ফরিদপুরে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ট্রাকে নিয়ন্ত্রণহীন মাইক্রোবাসের ধাক্কায় দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। গতকাল ভোরে মধুখালী উপজেলার কামারখালীর আড়পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মোশাররফ হোসেন (৮০) এবং আমেনা বেগম (৬৫)। তাদের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায়। আহতদের মধুখালী ও ফরিদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসআই আব্দুর রহিম বলেন, ভোরে মহাসড়কে একটি স্পিড ব্রেকারের কাছে মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মালবাহী ট্রাকটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এ সময় মাইক্রোবাসের দুই যাত্রী ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত হন কমপক্ষে পাঁচজন। মাইক্রোবাস ও ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়ায় কার্ভাডভ্যানের ধাক্কায় তারিকুল আলম (২৭) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত আরও দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত শনিবার মধ্যরাতে পটিয়ার ভাইয়ার দীঘি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত তারিকুল আলম পটিয়া পৌরসভার গোবিন্দরখীল তালতলা এলাকার নুরুল আলমের ছেলে।
পটিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) সিরাজুল ইসলাম জানান, মোটরসাইকেল আরোহী তরিকুলসহ আরও দুজন চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক দিয়ে পটিয়ার দিকে আসছিলেন। এ সময় কক্সবাজারগামী একটি কাভার্ডভ্যান মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে তিনজনই গুরুতর আহত হন। পরে তাদের উদ্ধার করে পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তারিকুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

পঞ্চগড় : পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় মাইক্রোবাস ও ট্রাক্টরের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও আটজন আহত হয়েছেন। গত শনিবার রাতে উপজেলার মাঝিপাড়া এলাকার পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, মাইক্রোবাসচালক তেঁতুলিয়া উপজেলা সদরের বুড়িমুটকি এলাকায় তুলেশ চন্দ রায়ের ছেলে স্বপন চন্দ্র রায় (২৩) এবং তেঁতুলিয়ার কলোনিপাড়া এলাকার রবিউল ইসলামের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৪০)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তেতুঁলিয়া থানার ওসি জহুরুল ইসলাম জানান, আত্মীয়র বাসায় দাওয়াত খেয়ে মাইক্রোবাসে পঞ্চগড়ের ডুডুমারি এলাকা থেকে পরিবারের ১০ সদস্য নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন রবিউল ইসলাম। মাঝিপাড়া এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি পাথরবাহী ট্রাক্টরের সঙ্গে তাদের মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে রবিউলের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ও মাইক্রোবাসচালক স্বপন মারা যান। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে তেঁতুলিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
শিবপুর (নরসিংদী) : ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার বড়ইতলা নামক স্থানে ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী মা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের চালক নিহত ছেলের বাবা মিজানুর রহমান। গত শনিবার সন্ধ্যায় মহাসড়কের শিবপুর উপজেলার বড়ইতলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন ঝিনাইদহের কুলবাড়িয়া এলাকার মিজানুর রহমানের স্ত্রী নাজমা আক্তার (৪০) ও তাদের ছেলে সিয়াম হোসেন (৩)।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম জানান, মিজানুর রহমান পেশায় বিআরটিসির বাসচালক। মিজানুর রহমান তার শ্বশুরবাড়ি লক্ষীপুরের রামগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেলযোগে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে তার কর্মস্থলের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। এ সময় মহাসড়কের বড়ইতলা পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকামুখী ট্রাক আরেকটি গাড়িকে অতিক্রম করে যাওয়ার সময় তাদেরকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই নাজমা আক্তার ও তাদের ছেলে সিয়ামের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। অভিযুক্ত ট্রাকের চালক ও হেলপারকে ট্রাকসহ আটক করেছে পুলিশ।

জয়পুরহাট : জয়পুরহাটে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নুরজাহান বেগম (৫৫) নামে এক প্রধান শিক্ষিকার মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার সন্ধ্যায় জয়পুরহাট-আক্কেলপুর সড়কের সুক্তাহার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত নুরজাহান বেগম আক্কেলপুর উপজেলার হাজিপাড়া গ্রামের ফারুক আহমেদের স্ত্রী এবং হাস্তা বসন্তপুর শাহ মাখদুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা। ওসি তদন্ত সাইদুর রহমান জানান, নুরজাহান বেগম জয়পুরহাট শহর থেকে ছেলের সঙ্গে মোটরসাইকেলে আক্কেলপুরে তার বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে সুক্তাহার এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা অপর এক মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে গুরুতর আহত হন নুরজাহান বেগম। এসময় স্থানীয়রা উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শিশু

২৭ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ