Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ভারত সফরে যাচ্ছেন পম্পেও-এসপার, প্রতিরক্ষা চুক্তির সম্ভাবনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ২:৫৬ পিএম

ভারতে যাচ্ছেন মার্কিন সেক্রেটারি অফ স্টেট মাইক পম্পেও ও সেক্রেটারি অফ ডিফেন্স মার্ক টি এসপার। ভারত-মার্কিন ‘টু প্লাস টু’ বৈঠকের তৃতীয় ধাপে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং-এর সঙ্গে তাদের আলোচনা হওয়ার কথা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের ৮ মাস পর দু’দেশের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত এই বৈঠক হতে চলেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কয়েক দিন আগে ভারত ও আমেরিকার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত চুক্তি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই বৈঠকের আগে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট বলেছে, নেতৃত্বপ্রদানকারী বিশ্বশক্তি হিসেবে ভারতের উত্থানকে সম্মান জানায় আমেরিকা। বলা হয়, ‘আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা কৌশল অনুযায়ী আমেরিকা ভারতের বিশ্বশক্তি হিসেবে উত্থানকে স্বাগত জানায়। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের আসন্ন টার্মে ভারতের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার দিকে তাকিয়ে রয়েছে আমেরিকা।’

পম্পেওর এই সফরের ফলে ট্রাম্প প্রশাসনের কোনও মার্কিন সেক্রেটারি অফ স্টেট এই নিয়ে চতুর্থবার ভারত সফর করতে চলেছেন। গত রাতে পম্পেও ট্যুইটে লেখেন, ‘ভারত, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ ও ইন্দোনেশিয়া সফরের জন্য রওনা হচ্ছি। আমাদের সঙ্গীদের সঙ্গে দেখা করতে পারার সুযোগ পেয়ে কৃতজ্ঞ, দৃঢ়, উন্নত ইন্দো-প্যাসিফিক দেশগুলির ভাবধারা শেয়ার করার সুযোগ পাব।’ মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের তরফে জানানো হয়েছে, দুই মার্কিন মন্ত্রী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছাড়াও সরকার ও বাণিজ্যক্ষেত্রের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ও দু’ দেশের সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে অগ্রণী হবেন।

আমেরিকা জানিয়েছে, টু প্লাস টু পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় স্তরের বৈঠকে দু’ দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা, প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদান, সেনাদের আলাপচারিতা ও প্রতিরক্ষা বাণিজ্যই হল মূল অ্যাজেন্ডা। ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত সমস্যা নিয়ে যখন প্রবল উত্তেজনা চলছে, তখন আমেরিকার সঙ্গে দিল্লির এই বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ