Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৭ আষাঢ় ১৪২৮, ০৯ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

‘ইসলামবিদ্বেষ’ বন্ধে ফেসবুক সিইওকে ইমরান খানের চিঠি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ১২:০০ এএম

ফেসবুকে ইসলামবিদ্বেষী কন্টেন্টগুলো বন্ধ করার দাবি জানিয়ে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জুকারবার্গকে চিঠি লিখেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। চিঠিতে ইমরান লিখেছেন, এ ধরনের পোস্টগুলো মুসলমানদের মনে ক্ষোভের জন্ম দিচ্ছে। এমনকি মুসলিমদের মধ্যে চরমপন্থাও উসকে দিচ্ছে। টুইটারে পাকিস্তান সরকারের অ্যাকাউন্ট থেকে চিঠিটি প্রকাশ করা হয়েছে।
চিঠিতে ইমরান খান লিখেছেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম বিশেষ করে ফেসবুকে ক্রমবর্ধমান ইসলামোফোবিক পোস্টগুলো শেয়ারের ফলে বিশ্বব্যাপী চরমপন্থা ও সহিংসতা উসকে দিচ্ছে। এ ধরণের পোস্ট ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানছে। মার্ক জুকারবার্গের কাছে ইমরান খানের অনুরোধ, হলোকাস্ট নিয়ে বিভিন্ন পোস্টের বিষয়ে ফেসবুকে যেমন বিধিনিষেধ আছে, ইসলামবিদ্বেষী পোস্টগুলোর ক্ষেত্রেও যেন একই ধরনের বিধি আরোপ করা হয়। ইমরানের লেখা এ চিঠির বিষয়ে জানতে রয়টার্সের পক্ষ থেকে ফেসবুকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাদের তরফ থেকে কিছু জানানো হয়নি।
সম্প্রতি ফ্রান্সে নবী মুহাম্মদ (স.) কে ব্যাঙ্গ করে কার্টুন প্রকাশের ঘটনার প্রসঙ্গ চিঠিতে তুলেছেন ইমরান খানইমরান খান অভিযোগ করেন, ব্যঙ্গকারীদের সমর্থন দিয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ ইসলামের ওপর আক্রমণ করছেন। সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন

কোয়েটায় এক মাদ্রাসাকে লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফোরণ : এক পথচারী আহত

img_img-1624240947

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানের কোয়েটায়  স্যাটেলাইট টাউনের একটি মাদ্রাসার কাছে আইইডি বিস্ফোরণে একজন আহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা ইসহাকাবাদ এলাকায় একটি উন্নত বিস্ফোরক যন্ত্রসহ একটি মোটর মোটরসাইকেল পার্ক করে এবং রিমোট কন্ট্রোল দিয়ে আইইডিটির বিস্ফোরণ ঘটায়। -ডন (ইংরেজি)   ওই বিস্ফোরণে একজন পথচারী আহত হয়েছেন। আশেপাশের কয়েকটি দোকান এবং আশপাশের বিল্ডিংয়ের জানালা ভেঙে যায়। পুলিশ আহত ব্যক্তিকে সিভিল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেছে।"বিস্ফোরণের সম্ভাব্য লক্ষ্য ছিল মাদ্রাসা দারুল উলূম শরিয়া" বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত চলছে বলেও